kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৭ চৈত্র ১৪২৬। ৩১ মার্চ ২০২০। ৫ শাবান ১৪৪১

মোরেলগঞ্জে রাতেও বসে নেই উপজেলা প্রশাসন

মোরেলগঞ্জ (বাগেরহাট) প্রতিনিধি   

২৬ মার্চ, ২০২০ ২১:৪২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মোরেলগঞ্জে রাতেও বসে নেই উপজেলা প্রশাসন

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে করোনাভাইরাস বিষয়ে সচেতনতায় রাতেও বসে নেই উপজেলা প্রশাসন। বাজারে বাজারে পুলিশ টিম নিয়ে টহল দিয়ে এলাকাবাসীকে সচেতন করার চেষ্টা করছেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রঞ্জন চন্দ্র দে।

আজ বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার সন্ন্যাসী বাজার, আমতলী বাজার ও বানিয়াখারী বাজারে তিনি টহল দেন। এ সময় তিনি বলেন, নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য ও ফার্মেসির দোকান খোলা থাকবে তবে একত্রে লোক জড়ো হওয়া যাবে না। চায়ের দোকানে টেলিভিশন ও কেরাম বোর্ড থাকবে না।

মোরেলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান জানান, ৪০৯ বাড়িতে লাল পতাকা উত্তোলন করা হয়েছে। গত দু’দিন ধরে উপজেলার ১৬টি ইউনিয়নসহ পৌরসভায় বিদেশ ফেরত বাড়িগুলোতে এ লাল পতাকা টাঙিয়ে দেওয়া হয়। ওই বাড়ির মানুষগুলোর সম্পর্কে তাদের কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে এবং প্রতিটি গ্রামের বিদেশফেরত মানুষদের হোম কোয়ারেন্টিনে স্বেচ্ছায় দুই সপ্তাহের জন্য পাঠানোর জন্য মাইকিং করে আহ্বান জানানো হয়েছে। প্রতিটি ইউনিয়ন ও পৌরসভায় মেয়র ও চেয়ারম্যানদের সমন্বয়ে একটি কমিটি গঠন করে দেওয়া হয়েছে বলে জানান এ কর্মকর্তা।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প. প. কর্মকর্তা ডা. কামাল হোসেন মুফতি জানিয়েছেন, করোনাভাইরাস সচেতনতায় মাঠ পর্যায়ে কমিউনিটি ক্লিনিকের সিএইস সিপি ফিল্ড ওর্য়াকরা কাজ করছেন। এ পর্যন্ত ৬১ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠিয়েছে। এদের মধ্যে ভারত থেকে আসা ৫০ জন, বাকি ১০ জন সিংঙ্গাপুর, রোমান, গ্রিস, জার্মানসহ বিভিন্ন দেশ থেকে এসেছেন। হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা কারো মধ্যে এখন পর্যন্ত করোনার লক্ষ পাওয়া যায়নি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা