kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ২৬ চৈত্র ১৪২৬। ৯ এপ্রিল ২০২০। ১৪ শাবান ১৪৪১

নারায়ণগঞ্জে প্রবাসফেরত ৫৯৬৮, চিহ্নিত মাত্র ২৮০ জন

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি   

২৬ মার্চ, ২০২০ ২০:০৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নারায়ণগঞ্জে প্রবাসফেরত ৫৯৬৮, চিহ্নিত মাত্র ২৮০ জন

গত ১ মার্চ থেকে আজ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত প্রবাস থেকে নারায়ণগঞ্জে ফিরেছেন ৫ হাজার ৯৬৮ জন প্রবাসী। তাদের মধ্যে মাত্র ২৮০ জনের ঠিকানা ও অবস্থান চিহ্নিত করা গেছে। ওই ২৮০ জনসহ হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে মাত্র ৩১০ জনকে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে জেলার এই ভয়াবহ চিত্র তুলে ধরেন জেলার তথ্য অফিসার সিরাজ উদ দৌলা খান। 

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, নারায়ণগঞ্জের ৩ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন। এদের ২ জন ইতিমধ্যেই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। এখন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ১ জন চিকিৎসাধীন। বৃহস্পতিবার নতুন করে ৪৯ জনসহ মোট ৩১০ জন হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন। গতকাল ১৪ জনসহ হোম কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন ৭৭ জন। করোনা মোকাবেলায় আক্রান্ত রোগিদের চিকিৎসার জন্য ৩০ শয্যার আইসোলেশন বেড প্রস্তুত রাখা হয়েছে। প্রস্তুত রাখা হয়েছে ৯০ জন চিকিৎসক ও ১৭৩ জন নার্সকে। জরুরি প্রয়োজনে ৬টি সরকারি অ্যাম্বুলেন্স প্রস্তুত রাখা হয়েছে বলেও প্রেস ব্রিফিংয়ে জানানো হয়। 

এদিকে আজ সরকারি ছুটির প্রথম দিন বিকেলে করোনা প্রতিরোধে সচেতনতা বাড়াতে জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের যৌথ উদ্দ্যোগে র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়েছে। র‌্যালি থেকে নগরবাসীকে করোনা প্রতিরোধে করণীয় সর্ম্পকে মাইকিং করা হয়। 

অপর দিকে সরকারি নির্দেশে আজ থেকে গণপরিবহন চলাচল বন্ধ থাকলেও শেয়ার করে নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়া থেকে সিএনজিযোগে মুন্সীগঞ্জের মুক্তারপুরে অনেক যাত্রীকে যাতায়াত করতে দেখা গেছে। ঘরে থাকার সরকারি নির্দেশ মানেননি অনেকেই।

সকালে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিঙ্ক রোডের শিবু মার্কেট এলাকায় সেনা সদস্যদের সাধারণ জনগণকে ঘরে থাকার আহবান জানিয়ে মাইকিং করতে দেখা গেছে। এ ছাড়া অহেতুক বাড়ির বাইরে বের হওয়ায় অনেক স্থানে র‌্যাব-১১’র সদস্যদের অ্যাকশন দেখা গেছে। নগরের চাষাঢ়া এলাকায় র‌্যাবের পক্ষ থেকে সচেতনতামূলক বিল বোর্ড এবং হাত ধোয়ার বিশেষ ব্যবস্থা করা হয়েছে। 

এদিকে সরকারি নির্দেশে বৃহস্পতিবার থেকে সারা দেশের মতো নারায়ণগঞ্জেও প্রয়োজনীয় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ছাড়া সব ধরণের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। তবে নিম্ন আয়ের কিছু মানুষ এরমধ্যেও পথে নেমেছেন জীবিকার তাগিদে। এদের মধ্যে রিকশা, অটো ও ইজিবাইক চালকরা রয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা