kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৭ চৈত্র ১৪২৬। ৩১ মার্চ ২০২০। ৫ শাবান ১৪৪১

করোনা সন্দেহে ভোগান্তি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর

বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি   

২৬ মার্চ, ২০২০ ১৯:২৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনা সন্দেহে ভোগান্তি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর

সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হলেও শ্বাসকষ্টসহ করোনাভাইরাসের উপসর্গ রয়েছে দাবি করে এক ছাত্রকে দীর্ঘসময় চিকিৎসা দেয়নি ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতাল। পরে মহাখালীর একটি হাসপাতাল ভর্তি নিলেও চিকিৎসা খরচ গুনতে হচ্ছে কয়েকগুন বেশি। আহত শিক্ষার্থী খায়রুল ইসলাম গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে দ্বিতীয় বর্ষে অধ্যায়নরত।

স্বজনরা জানান,খায়রুল ২৩ মার্চ সড়ক দুর্ঘটনায় পা ও মাথায় আঘাত পান। প্রথমে তাকে কুমিল্লার মুন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু ২৫ তারিখে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ঢাকায় স্থানান্তরের উদ্যোগ নেয়া হয়। তার শ্বাসকষ্টসহ লক্ষনসম‚হ করোনাভাইরাসের বলে দাবি করে চিকিৎসকরা আইসিইউতে নিতে বলেন। কিন্তু ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ রাজধানীর কয়েকটি বেসরকারি হাসপাতাল খায়রুলকে ভর্তি নিতে অস্বীকৃতি জানায়। সর্বশেষ মহাখালীর ইউনিভার্সাল মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতালে তাকে ভর্তি সম্ভব হয়।

শিক্ষার্থীর ফুফু মোসা. হাসনা আক্তার বলেন, ' হাসপাতাল থেকে রোগীর প্রেসক্রিপশনে করোনাভাইরাসের লক্ষণ উল্লেখ করে দেয়ায় ভোগান্তি শুরু হয়। খায়রুল করোনা আক্রান্ত নয় নিশ্চিত হয়ে তারপর হাসপাতালে চিকিৎসা শুরু হয়েছে। খায়রুলের বাবা মারা গেছেন অনেক আগে। বর্তমান চিকিৎসায় আইসিইউ খরচসহ প্রতি ১২ ঘন্টা পরপর বিল হচ্ছে ৪০ হাজার টাকা। এ বিল প্রদান পরিবারের পক্ষে অসম্ভব হয়ে উঠেছে।' এ অবস্থায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনসহ সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন খায়রুলের স্বজনরা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা