kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৭ চৈত্র ১৪২৬। ৩১ মার্চ ২০২০। ৫ শাবান ১৪৪১

প্রস্তুত প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন

প্রবাসীদের বাড়িতে লাল পতাকা, ২৬টি হাট বন্ধ

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি   

২৬ মার্চ, ২০২০ ১৩:৪১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রবাসীদের বাড়িতে লাল পতাকা, ২৬টি হাট বন্ধ

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে ও সচেতনতা বাড়াতে বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলায় প্রবাসীদের বাড়িতে লাল পতাকা টাঙিয়ে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। একই সঙ্গে উপজেলার ২৬টি হাট বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে এবং প্রস্তুত করা হয়েছে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন।

জানা গেছে, বিদেশফেরত নন্দীগ্রাম উপজেলায় ৬৪ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। তাদের মধ্যে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিন শেষ হওয়ায় ২৮ জনকে স্বাভাবিক চলাফেরার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। এসব হোম কোয়ারেন্টিন থাকা প্রবাসীদের বাড়িতে লাল পতাকা টাঙানো হয়েছে। লাল পতাকা লাগানো বাড়িতে কেউ যেন যাতায়াত না করেন এবং প্রবাসীরাও যেন বাড়ি থেকে বের না হন, সে জন্য এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

এদিকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে নন্দীগ্রাম উপজেলার ২৩টি ও পৌরসভার ৩টি হাটবাজার বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। একই সঙ্গে জনসমাগম ও দলবেঁধে চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এলাকায় এলাকায় মাইকিং করে নিরাপদ দূরুত্ব বজায় রাখতে বার বার বলা হচ্ছে। করোনা সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে লিফলেট বিতরণসহ থানা-পুলিশের পক্ষ থেকে পৌরশহরে জীবাণুনাশক ওষুধ ছিটানো হয়। সবাইকে নিজ নিজ ঘরে অবস্থান করার জন্য বারবার তাগিদ দেওয়া হচ্ছে। একই সাথে গণপরিবহনগুলোও বন্ধ রয়েছে। উপজেলাকে লকডাউন করা না হলেও ওষুধের দোকান, কাঁচাবাজার ছাড়া অন্যান্য ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ রয়েছে।

তা ছাড়া উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় ১৩টি প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে ১১৭ শয্যাবিশিষ্ট বেড প্রস্তুত করা হয়েছে। এ ছাড়াও করোনা বিষয়ে যেকোনো তথ্য ও সেবার জন্য উপজেলা কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোসা. শারমিন আখতার বলেন, উপজেলায় ১৩টি প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন স্থাপন করা হয়েছে। প্রবাসীদের বাড়িতে লাল পতাকা টাঙানোসহ উপজেলার ২৬টি হাট বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। একই সঙ্গে জনসমাগম ও দলবেঁধে চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা