kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৪ চৈত্র ১৪২৬। ৭ এপ্রিল ২০২০। ১২ শাবান ১৪৪১

পিকনিকের বাস খাদে: পরিচয় মিলেছে নিহতদের

দাউদকান্দি (কুমিল্লা) প্রতিনিধি    

২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১০:৫৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পিকনিকের বাস খাদে: পরিচয় মিলেছে নিহতদের

ছবি : কালের কণ্ঠ।

কুমিল্লার দাউদকান্দিতে আজ শনিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে  পিকনিকের বাস খাদে পড়ে যে তিনজন নিহত হয়েছেন তাঁদের পরিচয় পাওয়া গেছে।

নিহতরা হলেন দুই বোরকা ব্যবসায়ী ঢাকার কেরানীগঞ্জ উপজেলার খেজুরবাগ গ্রামের শাহ আলমের ছেলে বোরকা ব্যবসায়ী মো. সফিকুল ইসলাম (৩৪) ও মুন্সিগঞ্জের সিরাজদীখান উপজেলার কাঁঠালতলী গ্রামের আবি তাহেরের ছেলে মো. রমজান হোসেন (৪০)। নিহত অপর ব্যক্তি হলেন পথচারী মো. শহীদ মোল্লা (৬২)। তিনি কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলা জিংলাতলী ইউনিয়নের ছান্দ্রা গ্রামের মৃত মজিদ মোল্লার ছেলে। তবে আহতদের পরিচয় এখনো জানা যায়নি।

এর আগে সকাল ৭টার দিকে ঢাকা চট্টগ্রামে মহাসড়কে দাউদকান্দি উপজেলা জিংলাতলী ইউনিয়ন পরিষদের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এতে তিনজন নিহত এবং অন্তত ১৫ জন আহত হন। আহতদের স্থানীয় গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং গুরুতরদের ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, খাদিজা ভিআইপি পরিবহনের একটি বাসে  গত বৃহস্পতিবার আনন্দ ভ্রমণে কক্সবাজারে যায় ঢাকার সদরঘাট বোরকা ব্যবসায়ী সমিতি। গতকাল শুক্রবার রাতে সেখান থেকে  ফিরছিলেন ভ্রমণকারীরা। আজ শনিবার সকাল ৭টার দিকে তাদের বহনকারী বাসটি কুমিল্লার দাউদকান্দির জিংলাতলী ইউনিয়ন পরিষদের সামনে রাস্তা পার হওয়া এক পথচারীকে বাঁচাতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারায় বাসটি। একপর্যায়ে তা সড়কের পাশে খাদে পড়ে যায়। এতে তিনজন নিহত হন। দুর্ঘটনায় আহত হন আরো ১৫ জন। খবর পেয়ে দাউদকান্দি হাইওয়ে থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে হতাহতদের উদ্ধার করে। এরপর আহতদের গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং গুরুতর আহতদের ঢাকায় পাঠানো হয়।

দাউদকান্দি হাইওয়ে থানা উপপরিদর্শক (এসআই) সার্জেন্ট মো.  আলমগীর হোসেন বলেন, পথচারীকে বাঁচাতে গিয়ে দুর্ঘটনায় পড়েছে পিকনিকের বাসটি। লাশ তিনটি পুলিশ হেফাজতে এবং বাসটি উদ্ধার করে থানায় নেওয়া হয়েছে। তবে পালিয়ে গেছে এর চালক। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা