kalerkantho

রবিবার  । ১৫ চৈত্র ১৪২৬। ২৯ মার্চ ২০২০। ৩ শাবান ১৪৪১

আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে সিরাজগঞ্জে মিনি ইজতেমা শেষ

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি   

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২১:১৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে সিরাজগঞ্জে মিনি ইজতেমা শেষ

সিরাজগঞ্জ পৌর শহরের ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের রাণীগ্রাম হার্ট পয়েন্ট এলাকার যমুনা নদীর চরে তিন দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত মিনি বিশ্ব ইজতেমা আজ শুক্রবার বাদ জুম্মা আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে। এ মোনাজাত পরিচালনা করেন ভারতের নিজাম উদ্দিন মার্কাসের মুরুব্বি হাফেজ মাসুদুল হাসান। এর আগে জুম্মার নামাজ পরিচালনা করেন ঢাকার কাকরাইল মার্কাসের মুরুব্বি মুফতি ওসামা বিন ওয়াসিফুল ইসলাম। 

সিরাজগঞ্জ জেলা তাবলীগ জামাত (মওলানা সাদ পন্থী) তিন দিনব্যাপী এ মিনি বিশ্ব ইজতেমার আয়োজন করেন। এতে সিরাজগঞ্জ জেলার ৯ উপজেলা প্রত্যন্ত গ্রাম থেকে আসা প্রায় ২০ হাজার ধর্মপ্রাণ মুসুল্লি অংশগ্রহণ করেন। মুসুল্লিরা ইজতেমা ময়দানে হাজির হয়ে দলবদ্ধ হয়ে প্রতিদিন নফল ইবাদত, সুরা মসক, কোরআন তেলয়াত, হাদিসের বয়ান করেন। 

এদিকে এ ইজতেমাকে ঘিরে জেলা প্রশাসন ব্যাপক নিরাপত্তার ব্যবস্থা করে। পুলিশ, র‌্যাব ও গোয়েন্দা পুলিশের কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত এ ইজতেমা ময়দানে সার্বক্ষণিক মেডিক্যাল টিম উপস্থিত ছিল। আজ শুক্রবার বাদ জুম্মা শান্তিপূর্ণ ভাবে এটি শেষ হয়।

এ বিষয়ে সিরাজগঞ্জ জেলা তাবলীগ জামাতের আমীর মোঃ নূরুল ইসলাম ও শাহজাদপুর উপজেলা তাবলীগ জামাতের আমীর আব্দুল হাই জানান, প্রশাসনের দেওয়া ১৩ শর্ত পূরণ করেই গত বুধবার বাদ আসর থেকে ইজতেমার কাজ শুরু হয়। এটি শনিবার সকাল ১০টা পর্যন্ত চলার কথা ছিল। সেভাবেই তাদের লিখিত পূর্ব অনুমোতি নেওয়া হয়। কিন্তু হঠাৎ করেই বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এটি শেষ করার জন্য নির্দেশ দেন। ফলে শুক্রবার বাদ জুম্মা আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে তা শেষ করতে হয়েছে। একদিন কমে যাওয়ায় বিভিন্ন আমল কমিয়ে সংক্ষিপ্ত করতে হয়েছে। ফলে ওইদিন হাজির হয়ে দূরের যারা আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে চেয়ে ছিলেন সময় সংক্ষিপ্ত হয়ে যাওয়ায় তারা আর আখেরী মোনাজাতে অংশ নিতে পারেননি।

এ ব্যাপারে সিরাজগঞ্জের পুলিশ সুপার হাসিবুল আলম জানান, বিভিন্ন জেলায় অনুষ্ঠিত ইজতেমাকে কেন্দ্র করে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটছে। তাই সিরাজগঞ্জে যাতে কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি না ঘটে সেজন্য এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এতে ইজতেমার কোনো অসুবিধা হয়নি।

সিরাজগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট তোফাজ্জল হোসেন জানান, পার্শ্ববর্তী জেলায় ইজতেমাকে কেন্দ্র উদ্বেগজনক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। তাই সিরাজগঞ্জে যাতে এ ধরনের পরিস্থিতি না ঘটে সেজন্য সময় সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে। এতে কোনো সমস্যা হয়নি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা