kalerkantho

রবিবার  । ১৫ চৈত্র ১৪২৬। ২৯ মার্চ ২০২০। ৩ শাবান ১৪৪১

মণিরামপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত’ নিহত, অস্ত্র-গুলি উদ্ধার

যশোর অফিস   

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১০:৪৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মণিরামপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত’ নিহত, অস্ত্র-গুলি উদ্ধার

যশোরের মণিরামপুর উপজেলার বেগারিতলায় পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নুরুল হক ওরফে কেরু (৪৭) নামে এক ডাকাত নিহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র, গুলি ও ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করেছে। কেরু মণিরামপুর উপজেলার ভোজগাতি গ্রামের মৃত মাজেদ গাজী বক্সের ছেলে।

কেশবপুর থানার ওসি জসিম উদ্দিন জানান, বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে কেশবপুর উপজেলার চিংড়াখালি এলাকায় ইজিবাইক ছিনতাইকালে নুরুল হককে আটক করে স্থানীয় জনতা। এরপর তারা তাকে পুলিশে সোপর্দ করে। নুরুল হক একজন চিহ্নিত ডাকাত। সে ১০টি ডাকাতি ও অস্ত্র মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি। জিজ্ঞাসাবাদে সে তার সহযোগী ও অস্ত্রের তথ্য দেয়। এরপর তাকে নিয়ে মণিরামপুর উপজেলার বেগারিতলায় অভিযানে যায় পুলিশ। কেশবপুর ও মণিরামপুর থানার যৌথ টিম তাকে নিয়ে বেগারিতলার সর্দারবাড়ি নার্সারির সামনে পৌছুলে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে নুরুল হকের সহযোগীরা। জবাবে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। এসময় গুলিবিদ্ধ হয় নুরুল হক কেরু। এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পিছু হটলে নুরুল হককে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। পরে তার মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়।

মণিরামপুর থানার এসআই শাহিনুর ইসলাম জানান, কেশবপুর থানার একটি টিম নুরুল হক কেরুকে নিয়ে তার সহযোগীদের ধরতে অভিযানে আসে। এ সময় পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে সে মারা যায়। তিনি মরদেহটি উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পৌছে দিয়েছেন।

তিনি আরো জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি ওয়ান শুটার গান, এক রাউন্ড গুলি ও চারটি ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা