kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ২৬ চৈত্র ১৪২৬। ৯ এপ্রিল ২০২০। ১৪ শাবান ১৪৪১

গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর পালিয়েছে ফতোয়াবাজরা

নিরুদ্দেশের তিন যুগ পর একত্রে নুরুজ্জামান দম্পতি

সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি   

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১২:১১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নিরুদ্দেশের তিন যুগ পর একত্রে নুরুজ্জামান দম্পতি

নিখোঁজের ৩৮ বছর পর ফিরে আসা নুরুজ্জামান (৬০)

নওগাঁর সাপাহারে নিখোঁজের তিন যুগ পর বাসায় ফিরে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে সাক্ষাতে বাধা ফতোয়া, শীর্ষক সংবাদটিদৈনিক কালের কণ্ঠসহ বিভিন্ন গনমাধ্যমে প্রকাশ হওয়ায় ফতোয়াবাজরা লেজ গুটিয়ে পালিয়েছে। অবশেষে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মোখলেছুর রহমান মুকুল ও স্থানীয় নেত্রীবৃন্দের মধ্যস্থতায় তারা এখন স্বামী-স্ত্রী হিসেবে একত্রে বসবাস শুরু করেছে।

জানা গেছে, উপজেলার দক্ষিণ আলাদীপুর গ্রামের মৃত বাঘ রাজ্জাকের ছেলে নুরুজ্জামান গত ১৯৮২ সালে তার বাবার ওপর অভিমান করে স্ত্রী-সন্তান রেখে বাড়ী থেকে নিরুদ্দেশ হয়েছিলেন। দীর্ঘ ৩৮বছর পর তিনি গত ২৫ ফেব্রুয়ারি পুনরায় নিজ গৃহে ফিরে আসলে তার আত্মীয়-স্বজন ও স্ত্রী সন্তানদের মাঝে খুশির বন্যা বয়ে যায়।

তবে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে সাক্ষাতে বাধ সাধে গ্রাম্য কিছু ফতোয়াবাজরা। তাদের মতে, দীর্ঘদিন ধরে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মেলামেশা না হলে সম্পর্ক বিচ্ছেদ হয়ে যায়। এমতাবস্থায় সৃষ্ট ঘটনার বর্ণনা দিয়ে একটি সংবাদ গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে স্থানীয় ওই ফতোয়াবাজরা তাদের দেয়া ফতোয়া হতে বিরত থাকে। এরই মধ্যে স্থানীয় ওই ইউপি চেয়ারম্যান সংবাদ পেয়ে তাদের সাথে যোগাযোগ করেন এবং এ বিষয়ে বেশ কিছু উপদেশ প্রদান করেন। তার উপদেশ পেয়ে নিরুদ্দেশ হওয়া নুরুজ্জামান ও তার শশুরের পরিবারের লোকজনেরা বুধবার বিকেলে স্ত্রী আরিফন বিবিকে শিয়ালমারী গ্রামে তার বড় ছেলের বাড়ীতে আনেন।

বুধবার সন্ধ্যার দিকে সাপাহার উপজেলা নির্বাহী অফিসার কল্যান চৌধুরী ও স্থানীয় থানা পুলিশের একটি দল বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার জন্য গোয়ালা ইউনিয়ন পরিষদ কর্যালয়ে গেলে ততক্ষণে তারা পারিবারিকভাবে বিষয়টি মীমাংসা করে নিয়েছে বলে জানান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা