kalerkantho

শুক্রবার । ২০ চৈত্র ১৪২৬। ৩ এপ্রিল ২০২০। ৮ শাবান ১৪৪১

উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় কিশোরীকে ধর্ষণ

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি   

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৮:১৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় কিশোরীকে ধর্ষণ

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার বাঘাসুরা ইউনিয়নের কালিকাপুর গ্রামে রিপন মিয়া (১৯) নামে এক যুবকের বিরদ্ধে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। গতকাল মঙ্গলবার রাত সাড়ে নয়টায় ওই কিশোরীকে অসুস্থ অবস্থায় হবিগঞ্জ আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর আগে ওই দিন সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় তাকে ধর্ষণ করে লম্পট রিপন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মাধবপুর উপজেলার কালিকাপুর গ্রামের ওই কিশোরীকে বিভিন্ন সময় রাস্তায় একা পেয়ে উত্ত্যক্ত করে আসছিল প্রতিবেশী মৃত আসকির মিয়ার বখাটে পুত্র রিপন মিয়া। এক পর্যায়ে মেয়েটি বিষয়টি রিপনের পরিবারের লোকজনকে জানায়। এতে রিপন তার ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে।

গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ওই কিশোরীর বাবা তার মাকে নিয়ে শ্বশুর বাড়ি চলে যান। এর কিছুক্ষণ পর সে(কিশোরী)  প্রয়োজনীয় কাজে বের হলে রিপন তাকে জোরপূর্বক তার ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ সময় তার চিৎকারে পালিয়ে যায় রিপন। পরে স্থানীয় লোকজন বিষয়টি তার বাবা-মাকে অবগত করেন।

ধর্ষিতার পিতা জানান, উল্লেখিত সময়ে তিনি তার স্ত্রীকে নিয়ে শ্বশুড় বাড়িতে দাওয়াত খেতে চলে যান। এ সুযোগে প্রতিবেশী রিপন মিয়া তার কিশোরী কন্যাকে জোরপূর্বক উঠিয়ে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে তার মেয়েকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে আত্মীয়-স্বজনরা তাকে বিষয়টি অবগত করলে তিনি বাড়িতে ছুটে এসে তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

এ ব্যাপারে মাধবপুর থানার ওসি ইকবাল হোসেন জানান, অনুসন্ধানে জানা গেছে উভয়ের মাঝে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এ নিয়ে সালিশ বিচার হলেও আপোষ না হওয়ায় ভিকটিম হাসপাতালে গেছে। তবে থানায় কোনো মামলা হয়নি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা