kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৪ চৈত্র ১৪২৬। ৭ এপ্রিল ২০২০। ১২ শাবান ১৪৪১

কুপিয়ে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানের হাত-পা বিচ্ছিন্ন করল প্রতিপক্ষরা

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি   

২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২০:১৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কুপিয়ে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানের হাত-পা বিচ্ছিন্ন করল প্রতিপক্ষরা

নড়াইলের লোহাগড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বদর খন্দকারকে (৪০) প্রতিপক্ষরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে শরীর থেকে দুটি পাসহ একটি হাত বিচ্ছিন্ন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

বদর খন্দকারের আত্মীয়রা জানান, সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে তিনি কালনাঘাটস্থ নিজ ইটভাটা থেকে মোটরসাইকেলে করে কামঠানা নিজ বাড়িতে ফেরার পথে পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা তার গতিরোধ করে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপায়। কোপে তার দুপায়ের হাঁটুর কবজির নিচ থেকে কেটে পড়ে যায়। এ ছাড়া তার বাম হাতের তিনটি আঙ্গুলসহ ডান হাতের কবজি কেটে ঝুলে যায়।

লোহাগড়া হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ডাক্তার সুমনা খানম ও বদর খন্দকারের আত্মীয় আলিম, সাইদ আলম জানান, ধারালো অস্ত্রের কোপে বদর খন্দকারের দুপাসহ বাম হাতের তিনটি আঙ্গুল ও ডান হাতের কবজি কেটে ঝুলে গেছে। অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় রোগীকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

বদর খন্দকারের পরিবারসহ এলাকাবাসী জানায়, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনসহ এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই এলাকার প্রতিপক্ষের সাথে তার বিরোধ চলছিল।

লোহাগড়া থানার ওসি মো. আলমগীর হোসেন জানান, আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ওই এলাকা নিয়ন্ত্রণে নিয়েছি। পরিবেশ শান্ত। অস্ত্র উদ্ধার ও সন্দেহভাজনদের আটকের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা