kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৪ চৈত্র ১৪২৬। ৭ এপ্রিল ২০২০। ১২ শাবান ১৪৪১

কলেজের পুকুরের মাছ ভাগ করে নিলেন শিক্ষকরা

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি   

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০৪:৩১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কলেজের পুকুরের মাছ ভাগ করে নিলেন শিক্ষকরা

মুন্সীগঞ্জের বিক্রমপুর টঙ্গিবাড়ী (বিটি) সরকারি কলেজের পুকুরের প্রায় দুই লাখ টাকার মাছ ভাগ করে নিয়েছেন শিক্ষকরা। এ নিয়ে এলাকার মানুষের মনে ক্ষোভ বিরাজ করছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে কলেজ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা টঙ্গিবাড়ী প্রেস ক্লাবে এসে মাছ ধরার বিষয়ে অভিযোগ করেন।

জানা যায়, ওই কলেজের দুই বিঘা আয়তনের পুকুরে সরকারিভাবে প্রতিবছর মাছ ছাড়া হয়। মাছ অবমুক্তকরণের সাইনবোর্ডও ওই পুকুরের ওপরে লাগানো রয়েছে। গত রবিবার দুপুরে কলেজ অধ্যক্ষ নুরুল মোমেন পুকুরের পারে দাঁড়িয়ে থেকে প্রায় ২০ মণ রুই-কাতল-মৃগেল জাতীয় মাছ জেলেদের দিয়ে ধরান। এ সময় ওই কলেজের শিক্ষক মৃণাল পাল, আজিজ হোসেন, রাজু আহমেদসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন। পরে অধ্যক্ষ ওই মাছ কলেজ শিক্ষকদের মধ্যে ভাগ করে দেন। এ ছাড়া জেলেদের মাছ ধরার খরচ দেওয়ার জন্য আড়তে নিয়ে আট হাজার টাকার মাছ বিক্রিও করেন তিনি। 

এ ব্যাপারে অধ্যক্ষ নুরুল মোমেন বলেন, ‘আমরা মাছ ধরে নিইনি। তবে জাল দিয়ে মাছ টেনে দেখেছি।’ এ ব্যাপারে টঙ্গিবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাসিনা আক্তার বলেন, ‘এলাকাবাসীর মৌখিক অভিযোগ পেয়ে আমি ওই কলেজ অধ্যক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলাম। অধ্যক্ষ বলেছেন এটা তাঁদের নিজস্ব পুকুর। আমি খোঁজ নিয়ে দেখব যদি সরকারি পুকুর হয় তবে অবশ্যই আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা