kalerkantho

শুক্রবার । ২০ চৈত্র ১৪২৬। ৩ এপ্রিল ২০২০। ৮ শাবান ১৪৪১

অভয়নগরে তালিকাভুক্ত মাদক কারবারি ফারুক গ্রেপ্তার

অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি   

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০২:৩৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অভয়নগরে তালিকাভুক্ত মাদক কারবারি ফারুক গ্রেপ্তার

যশোরের অভয়নগরে এবার তালিকাভুক্ত মাদক কারবারি জিএম ফারুককে (৩৫) ফেনসিডিলসহ গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রবিবার সন্ধ্যায় উপজেলার গুয়াখেলা গ্রামের মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন টুকটুকি জেনারেল স্টোর নামের দোকান থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। উদ্ধার করা হয় ১০ বোতল ফেনসিডিল। এ সময় তার অন্যতম সহযোগী ছোট ভাই সুজন পালিয়ে যায়। গ্রেপ্তারকৃত ফারুক গুয়াখোলা গ্রামের মৃত ওহাব গাজীর ছেলে। 

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় কয়েকজন ব্যবসায়ী জানান, দীর্ঘদিন ধরে নওয়াপাড়া মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও নূরবাগ স্বাধীনতা চত্বরের মাঝামাঝি স্থানে টুকটুকি জেনারেল স্টোরে ফারুক তার মাদক ব্যবসা করে আসছে। দোকানের মধ্যে বিভিন্ন কম্পানির কোমল পানীয়র বোতলে সে ফেনসিডিল ভরে বিক্রি করত। গোপনে ইয়াবা ট্যাবলেটও সরবরাহ করত। তার মাদক বাহিনীর ভয়ে কেউ প্রতিবাদ করতে পারেনি। আমরা চিহ্নিত ও তালিকভুক্ত মাদক কারবারি ফারুকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাই।

অভয়নগর থানা সূত্র জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রবিবার বিকাল থেকে টুকটুকি জেনারেল স্টোরে অভিযান চালানো হয়। এ সময় দোকানের বিভিন্ন মালামালের মধ্যে লুকিয়ে রাখা তিন বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়। ফারুকের ছোট ভাই সুজন পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে ফেনসিডিল ও ইয়াবা ট্যাবলেট ভর্তি একটি অটোবাইক নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে ফারুকের স্বীকারোক্তি মোতাবেক গুয়াখেলা প্রফেসরপাড়া খাঁ বাড়ি সংলগ্ন তার ভাড়া বাসা থেকে আরো সাত বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়।

এ ব্যাপারে অভয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. তাজুল ইসলাম বলেন, অভয়নগরকে মাদক, সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজমুক্ত করার অভিযান শুরু হয়েছে। মাদক সম্রাট খ্যাত জিএম ফারুক মাদকসহ একাধিক মামলার আসামি। তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে তালিকাভুক্ত অন্যদের গ্রেপ্তার করা হবে। ফারুকের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা