kalerkantho

শুক্রবার । ২০ চৈত্র ১৪২৬। ৩ এপ্রিল ২০২০। ৮ শাবান ১৪৪১

টেকনাফে তৃণমূল আ. লীগের সম্মেলন ঘিরে অসন্তোষ

বিশেষ প্রতিনিধি, কক্সবাজার   

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০১:৪২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



টেকনাফে তৃণমূল আ. লীগের সম্মেলন ঘিরে অসন্তোষ

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলন আজ সোমবার। নতুন কমিটিতে সাধারণ সম্পাদক পদে বিতর্কিত একজনের প্রার্থী হওয়া এবং পদের জন্য স্থানীয় সংসদ সদস্যের পক্ষে বিনা মূল্যে সৌরবিদ্যুতের সংযোগ দেওয়ার সিল মারা কাগজ বিতরণকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে।

আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী, তালিকাভুক্ত কোনো মাদক কারবারি দলের পদ-পদবিতে থাকতে পারবেন না। সে কারণে গত শুক্রবার অনুষ্ঠিত টেকনাফের বাহারছড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলনে স্থানীয় দুই তালিকাভুক্ত ইয়াবা কারবারি যমজ ভাইকে স্থান দেওয়া হয়নি। একইভাবে টেকনাফ সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কমিটি থেকেও তালিকাভুক্ত ইয়াবা কারবারিদের বাদ দেওয়া হয়েছে।
 
জানা গেছে, দলের গঠনতন্ত্রে নবাগত সদস্যদেরও কোনো পদে না রাখার কথা থাকলেও আজ টেকনাফের সাবরাং ইউনিয়ন তৃণমূল আওয়ামী লীগের সম্মেলন সামনে নিয়ে এ রকম বিতর্কেরও সৃষ্টি হয়েছে। ইউনিয়ন কমিটির সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হচ্ছেন টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নুর হোসেন। নুর হোসেন মাত্র তিন মাস আগে যুবলীগের সাধারণ সম্পাদকের পদে ইস্তফা দিয়ে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য হন। তিনি (নুর হোসেন) সাবরাং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানও। নুর হোসেনের নাম রয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ইয়াবা কারবারির তালিকায়ও। 

এ বিষয়ে নুর হোসেন কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘সম্মেলনের মাধ্যমে কাউন্সিলররা আমাকে দলের দায়িত্ব দিতে চায়। তাই আমি দলে যোগদান করেছি।’

অন্যদিকে আবুল কলাম নামের আরেকজন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত ইয়াবা কারবারি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে প্রার্থিতা ঘোষণা করেছেন। এসব ঘটনা নিয়ে দলীয় লোকজনের মধ্যে ব্যাপক অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। তবে আবুল কালাম দাবি করেছেন যে তিনি তালিকাভুক্ত ছিলেন, পরবর্তী সময়ে তাঁর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তদন্ত করে নাম বাদ দেওয়া হয়েছে। 

সভাপতি পদে আরেক প্রার্থী আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদির ভগ্নিপতি এবং অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ পরিদর্শক আবদুর রহমান। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে যে তিনি তাঁর শ্যালক বদির স্ত্রী বর্তমান সংসদ সদস্য শাহীন আক্তারের সিল মারা একটি কাগজ ধরিয়ে দিয়ে কাউন্সিলরদের সমর্থন প্রার্থনা করছেন। সিল মারা কাগজটিতে বিনা মূল্যে সৌরবিদ্যুতের সংযোগ দেওয়ার কথা লেখা রয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা