kalerkantho

শনিবার । ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ৪ রজব জমাদিউস সানি ১৪৪১

মানুষের ঘুম কেড়ে নেওয়া ডাকাত আছকির ধরা

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি   

২৪ জানুয়ারি, ২০২০ ১৩:৩৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মানুষের ঘুম কেড়ে নেওয়া ডাকাত আছকির ধরা

আছকির মিয়া। পেশায় ডাকাত, এ অঞ্চলের এক দুর্ধর্ষ ডাকাত হিসেবে সুপরিচিত। আন্তঃডাকাত দলের সদস্য। তার আতঙ্কে কমলগঞ্জ, শ্রীমঙ্গল ও কুলাউড়াবাসীর রাতে ঘুম হতো না। অবশেষে পুলিশ তাকে আটক করেছে। 

আছকির ডাকাতের বাড়ি কুলাউড়া উপজেলার বাঘাজুড়া গ্রামে। দীর্ঘদিন পলাতক থাকা এই ডাকাত কমলগঞ্জের শমসেরনগরে বসবাস করে আসছিলেন। আছকির ডাকাতের বিরুদ্ধে কমলগঞ্জ, কুলাউড়াথানাসহ বিভিন্ন এলাকায় প্রায় ১০টি ডাকাতির মামলা রয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) রাতে জুড়ি এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেছে জুড়ি থানা পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, আছকির মিয়া প্রায় ১৫-২০ বছর ধরে ডাকাতির সাথে জড়িত। জেলার বিভিন্ন ডাকাতদের সাথে তার ওঠাবসা ছিল। মৌলভীবাজারের বিভিন্ন উপজেলায় তিনি ডাকাতি করতো। তার আতংকে দিন কাটে কমলগঞ্জ, কুলাউড়াসহ অন্যান্য উপজেলার মানুষের। তিনি কুলাউড়া উপজেলার বাঘা জুড়া গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে। ডাকাতি শুরু করার পর ধীরে ধীরে ভয়ংকর ডাকাত হয়ে ওঠেন। এ কাজে তার স্ত্রীসহ গোটা পরিবার জড়িয়ে পড়ে। তার এক ভাই ডাকাতির ঘটনায় জেল খাটছেন। 

কমলগঞ্জ থানা পুলিশ দীর্ঘদিন ধরে তাকে আটকের চেষ্টা করে আসছিল। তার বিরুদ্ধে কমলগঞ্জ থানায় একাধিক ডাকাতি মামলা রয়েছে বলে জানান কমলগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) সুধীন চন্দ্র। অবশেষে বৃহস্পতিবার রাতে জুড়ি এলাকা হতে আটক করা হয়। তার আটকের সংবাদে এলাকায় মানুষের মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে। 

ওসি (তদন্ত) সংবাদমাধ্যমকে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আছকির মিয়াকে আটক করা হয়। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থাকায় একাধিক ডাকাতি মামলা রয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা