kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৭ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪১

এতিমের জায়গায় বিএনপি নেতার ভবন তৈরি

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি   

২৪ জানুয়ারি, ২০২০ ০৩:৪৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এতিমের জায়গায় বিএনপি নেতার ভবন তৈরি

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার বাঢ়ীখাল ইউনিয়নের বালাশুর বউবাজার গ্রামের এতিমের জায়গা (ভূমিহীন বন্দোবস্ত) দখল করে স্থানীয় এক বিএনপি নেতার বিরুদ্ধে ভবন তৈরির অভিযোগ উঠেছে। গত ২৫ ডিসেম্বর স্থানীয় বিএনপির নেতা সেলিম মোল্লা গং একই গ্রামের এতিম সুমি আক্তারের জায়গা দখল করে ভবন তৈরির কাজ শুরু করে।

শ্রীনগর সহকারী কমিশনার (ভূমি) অর্ফিসের সার্ভেয়ার মোসলেম উদ্দিন জমি মাপজোখ করে সীমানা নির্ধারণ করে এলেও সেলিম মোল্লা গং সে মাপজোখের তোয়াক্কা না করেই ভবন তৈরির কাজ করে চলছে। সুমি আক্তারের পক্ষ থেকে নিষেধ করলে তাদের প্রাণ নাশের হুমকি দিয়ে আসছেন এই নেতা।

জানা যায়, রাঢ়ীখাল মৌজাস্থিত ১ নম্বর খতিয়ানভুক্ত ১৭১১ দাগের ২৭ শতাংশ নালজমি ২০ বছর আগে ভুক্তভোগী এতিম সুমি আক্তারের বাবা মৃত আব্দুল সামাদ বেপারী ও মা মমতাজ বেগমের নামে সাড়ে ১৩ শতাংশ করে সরকার থেকে ভূমিহীনভাবে বন্দোবস্ত দেয়। ছয় বছর আগে সামাদ বেপারী মারা যান।

তার পর থেকে একই গ্রামের মৃত আমির মোল্লার ছেলে সেলিম মোল্লা, বাবুল মোল্লা, কাঞ্চন মোল্লা গং এতিম সুমি আক্তার ও ময়না আক্তারের ওই সম্পত্তি দখল নিতে চাপ প্রয়োগ করে আসছে। এ নিয়ে একাধিকবার স্থানীভাবে চেয়ারম্যানসহ প্রশাসনিকভাবে মীমাংসার চেষ্টা করে। কিন্তু সেলিম মোল্লা গং কারো কোনো কথাই শুনছেন না।

এ ব্যাপারে প্রতিকার চেয়ে গত ২ জানুয়ারি মমতাজ বেগম বাদী হয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শ্রীনগর বরাবরে একটি অভিযোগ করেন। এ ছাড়া সুমি গত ২২ জানুয়ারি শ্রীনগর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। 

ভবন তৈরির ব্যাপারে সেলিম মোল্লা বলেন, ‘চেয়ারম্যান ও হারুন মেম্বার আমাকে ভবন তৈরি করার অনুমতি দিয়েছেন।’ এ ব্যাপারে রাঢ়ীখাল ইউপি চেয়ারম্যান বারেক খান বারী বলেন, ‘আমি এ ব্যাপারে সেলিম মোল্লা গংদের কোনো অনুমতি দেইনি। বিষয়টি আমি অনেকবার মীমাংসা করার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছি।’ 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা