kalerkantho

বুধবার । ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ১ রজব জমাদিউস সানি ১৪৪১

ন্যাশনাল হার্ট ফাউণ্ডেশন জামালপুর কেন্দ্রের উদ্বোধন

জামালপুর প্রতিনিধি   

২০ জানুয়ারি, ২০২০ ২২:১১ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ন্যাশনাল হার্ট ফাউণ্ডেশন জামালপুর কেন্দ্রের উদ্বোধন

শুরু হয়েছে ন্যাশনাল হার্ট ফাউণ্ডেশন জামালপুর কেন্দ্রের কার্যক্রম। আজ সোমবার বিকেলে জামালপুর শহরের নয়াপাড়া পাঁচরাস্তা মোড়ে ন্যাশনাল হার্ট ফাউণ্ডেশন জামালপুর কেন্দ্রের শুভ উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল হার্ট ফাউণ্ডেশনের মহাসচিব অধ্যাপক আব্দুল আউয়াল রিজভী।

সোমবার বিকেল ৪টায় বাংলাদেশ ন্যাশনাল হার্ট ফাউণ্ডেশনের মহাসচিব অধ্যাপক আব্দুল আউয়াল রিজভী তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান এবং বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সংসদ সদস্য মির্জা আজমকে সাথে নিয়ে ফিতা কেটে জামালপুর ন্যাশনাল হার্ট ফাউণ্ডেশনের অস্থায়ী কেন্দ্রের শুভ উদ্বোধন করেন। পরে এ উপলক্ষে জামালপুর সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজের অডিটোরিয়ামে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

সংসদ সদস্য ও জামালপুর ন্যাশনাল হার্ট ফাউণ্ডেশন কমিটির সভাপতি মির্জা আজমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী আলোচনা সভায় উদ্বোধকের বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল হার্ট ফাউণ্ডেশনের মহাসচিব অধ্যাপক আব্দুল আউয়াল রিজভী। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ন্যাশনাল হার্ট ফাউণ্ডেশন জামালপুরের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরী।

এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সাবেক ভূমিমন্ত্রী মো. রেজাউল করিম হীরা, পুলিশ সুপার মো. দেলোয়ার হোসেন, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ কবীর উদ্দিন, সিভিল সার্জন ডা. গৌতম রায়, জামালপুর পৌরসভার মেয়র মির্জা সাখাওয়াতুল আলম মনি, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আইনজীবী মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ, বাংলাদেশ ন্যাশনাল হার্ট ফাউণ্ডেশনের প্রধান কার্ডিয়াক সার্জন অধ্যাপক ডা. ফারুক আহাম্মেদ প্রমুখ।

তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান তার বক্তব্যে বলেন, জামালপুরবাসীকে হাতের কাছে হৃদরোগের জরুরি ও উন্নত চিকিৎসাসেবা দেওয়ার লক্ষ্য নিয়েই ন্যাশনাল হার্ট ফাউণ্ডেশন জামালপুর কেন্দ্রের ঐতিহাসিক পথচলা শুরু হলো। হাতের কাছে জরুরি হৃদরোগের চিকিৎসাসেবায় একই কেন্দ্রটি জামালপুরবাসীর বেশ কাজে দিবে। এই অস্থায়ী কেন্দ্রে সার্বক্ষণিক বিশেষজ্ঞ হৃদরোগ চিকিৎসকের মাধ্যমে অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি ও ল্যাবে পরীক্ষা নিরীক্ষা করে হৃদরোগের চিকিৎসাসেবা দেওয়ার ব্যবস্থা থাকবে। প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশ ন্যাশনাল হার্ট ফাউণ্ডেশনের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, জামালপুর কেন্দ্রের কমিটির সবাইকে নিয়ে এবং আরো যারা সহায়তার হাত বাড়িয়ে এগিয়ে আসবেন তাদেরকে নিয়ে এই কেন্দ্রটির উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাবো।

ন্যাশনাল হার্ট ফাউণ্ডেশন জামালপুর কমিটির সভাপতি ও অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সংসদ সদস্য মির্জা আজম তার বক্তব্যে বলেন, ন্যাশনাল হার্ট ফাউণ্ডেশন কোনো ব্যবসায়ী উদ্দেশ্যে জামালপুরে হচ্ছে না। জামালপুরের মানুষের সেবা করার ব্রত নিয়েই এর কার্যক্রম শুরু করেছি। এটি সম্পূর্ণ অলাভজনক একটি প্রতিষ্ঠান হবে। সকলের অর্থনৈতিক সহযোগিতা ও পরামর্শেই এই ফাউণ্ডেশনকে পূর্ণাঙ্গ প্রতিষ্ঠানে রূপ দেওয়া সম্ভব হবে।

তিনি জানান, শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজের কাছেই প্রায় এক একর জমি ক্রয় করা হয়েছে। খুব শিগগির সেখানে পূর্ণাঙ্গ হাসপাতালসহ ন্যাশনাল হার্ট ফাউণ্ডেশনের কার্যক্রম পুরোদমে চালু করা হবে। তিনি এই প্রতিষ্ঠানটির অগ্রযাত্রায় জামালপুরের বিত্তবান থেকে শুরু করে সর্বমহলের সহযোগিতা ও পরামর্শ কামনা করেন। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা