kalerkantho

সোমবার । ২০ জানুয়ারি ২০২০। ৬ মাঘ ১৪২৬। ২৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

কাউখালীতে সেলুনকর্মীর ঝুলন্ত লাশ

কাউখালী (রাঙামাটি) প্রতিনিধি   

১৪ জানুয়ারি, ২০২০ ১৮:৪৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কাউখালীতে সেলুনকর্মীর ঝুলন্ত লাশ

কাউখালীর বেতবুনিয়া থেকে ৫৫ বছর বয়সী সুনীল শীল নামে এক সেলুনকর্মীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রবিবার দুপুরে উপজেলার বেতবুনিয়া ইউনিয়নের বেতবুনিয়া বাজার এলাকার ভাড়া বাসা থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। সুনীল শীল চট্টগ্রাম জেলার লোহাগাড়া উপজেলার পদুয়া গ্রামের মৃত বেবিত শীল এর ছেলে। সে বেতবুনিয়া বাজারের শ্রী কাজল দে এর সেলুনে কাজ করত।

সুনীল শীল এর দোকানের মালিক কাজল দে জানায়, সুনীল দীর্ঘদিন বেতবুনিয়া বাজারে সেলনুকর্মী হিসেবে কাজ করছিল। গত ছয় মাস যাবৎ কাজলদের দোকানে কর্মরত ছিল। দোকানের অদূরে জনৈক বাবুল দে এর বাড়িতে ভাড়া থাকত সুনীল। রবিবার সকাল সাড়ে দশটা নাগাদ বাড়ীর মালিক বাবুলের স্ত্রী সুনীলের ঝুলন্ত লাশ দেখতে পেয়ে তাকে জানালে সে বিষয়টি পুলিশকে জানান। পুলিশ খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করে। সুনীল খুবই চুপচাপ থাকত। সে কারো রান্না খেত না। কাজের পরের সময়টুকু ধর্মকর্ম নিয়েই ব্যস্ত থাকত।

সুনীল দে এর ছেলে পিয়াল শীল জানান, বাবা ছোটবেলায় আমাদের ফেলে চলে গেছে। তিনি আমাদের সাথে কোনো যোগাযোগ রাখতেন না। তিনি ইস্কন এর অনুসারী ছিলেন। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জায়গায় চলে যেতেন। মন্দিরে মন্দিরে থাকতেন। রবিবার দুপুরে জানতে পেরেছি বাবা আত্মহত্য করেছে। শুনেছি ওখানে (বেতবুনিয়া) সামাজিকভাবে সমাধান করা হবে। আমরা গার্মেন্টে চাকরি করি টাকা পয়সা নেই যেতে পারছি না।

কাউখালী থানার এসআই হারুনুর রশিদ জানান, আমরা খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের সাথে যোগাযোগ করেছি। তারা বিভিন্ন অজুহাত দেখাচ্ছে। যা বুঝতে পেরেছি লাশ গ্রহণ করতে পরিবারের কেউ আসবে না। তাই সনাতন সম্প্রদায়ের নেতাদের অনুরোধ করেছি তাদের নিয়ম অনুযায়ী লাশ সৎকার করার জন্য। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা