kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জানুয়ারি ২০২০। ১৪ মাঘ ১৪২৬। ২ জমাদিউস সানি ১৪৪১     

মেধাবী মামুনের পাশে দাঁড়ালেন এমপি

আঞ্চলিক প্রতিনিধি,ময়মনসিংহ   

১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২১:০৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মেধাবী মামুনের পাশে দাঁড়ালেন এমপি

ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার দাতারাটিয়া গ্রামের মাটিকাটা শ্রমিকের ছেলে মামুন মিয়ার পড়ালেখা নিয়ে অনিশ্চয়তা কাটতে শুরু করেছে। চারটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তির সুযোগ পেয়েও মামুন চিন্তিত হয়ে পড়েছিলেন আর্থিক সংকটে। ময়মনসিংহ-৯ (নান্দাইল) আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আবেদিন খান তুহিন শনিবার সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন। তিনি মামুনের লেখাপড়ায় পাশে থাকার ঘোষণা দিয়েছেন।

মেধাবী মামুনের ভর্তি নিয়ে অনিশ্চিয়তা বিষয়ে সম্প্রতি কালের কণ্ঠে সংবাদ প্রকাশ হয়। তারই সূত্রে শনিবার সকালে মামুনের হাতে ১০ হাজার টাকা তুলে দেন সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আবেদিন খান তুহিন।  মিসেস জাহানারা খান বৃত্তি ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে এই অর্থ বরাদ্ধ দেওয়া হয়।

জাহানারা খান বৃত্তি ফাউন্ডেশনে উপদেষ্টা  ও সংসদ সংসদ সদস্য আনোয়রুল আবেদিন খান তুহিন বলেন, ' কালের কণ্ঠে সংবাদ প্রকাশ হলে মামুনের বিষয়টি জানতে পেরেছি। লেখাপড়া করতে গিয়ে তার যেকোনো ধরনের সহযোগিতা প্রয়োজন হলে আমি করবো।'

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে শনিবার নান্দাইল উপজেলা পরিষদ হল রুমে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানেই সংসদ সদস্য মামুনের হাতে অর্থিক সাহায্য তুলে দেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাসান মাহমুদ জুয়েল, ইউএনও আব্দুর রহিম সুজন,সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহমুদা আক্তার, পৌর মেয়র রফিক উদ্দিন ভুইয়া, ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের সদস্য ও জাহানারা খান বৃত্তি ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা আবু বক্কর সিদ্দিক বাহার, আওয়ামী লীগ নেতা শরাফ উদ্দিন ভুইয়া প্রমুখ।

দাতারাটিয়া গ্রামের মেধাবি সন্তান মামুন ২০১৭ সালে এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়েছিল। এবার চারটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন। বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রায় সাড়ে সাত হাজার পরীক্ষার্থীর মধ্যে মামুন চতুর্থ স্থান অধিকার করেছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা