kalerkantho

সোমবার। ২৭ জানুয়ারি ২০২০। ১৩ মাঘ ১৪২৬। ৩০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

নাতনির হাতের রান্না খেয়ে বাড়ি ফেরা হলো না দাদার

হাজীগঞ্জ (চাঁদপুর) প্রতিনিধি   

১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৯:৪৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নাতনির হাতের রান্না খেয়ে বাড়ি ফেরা হলো না দাদার

মোহাম্মদ আলী ওরফে আলী মিয়া (৭০) জীবনের শেষ খাবার খেলেন নাতনির হাতে। নাতনির বাড়িতে গিয়ে দাওয়াত খেয়ে নিজ বাড়ি ফেরার পথেই সড়ক দুর্ঘটনা মারা যান তিনি। আজ শনিবার সন্ধ্যার দিকে মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে চাঁদপুর-কুমিল্লা আঞ্চলিক মহাসড়কের হাজীগঞ্জের ধেররা এলাকায়।

ঘটনার পর পর ঘাতক বোগদাদ পরিবহনের বাসের চালক ও হেলপার পালিয়ে গেছে তবে পুলিশ বাসটিকে জব্দ করেছে। আলি মিয়া হাজীগঞ্জ উপজেলার কালচোঁ দক্ষিন ইউনিয়নের গ্রামের মৃত ইদ্রিস আলীর ছেলে।

নিহতের পরিবারিক সূত্রে জানা গেছে, এদিন তিনি দুপুরে সপরিবারে নাতনি ফেরদৌসী আক্তারের স্বামীর বাড়ি হাজীগঞ্জ পৌর এলাকার খাটরা গ্রামে দাওয়াত খেতে আসেন। দাওয়াত খেয়ে জরুরি কাজ থাকায় বিকেলের দিকে তিনি একা বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন। পথে কুমিল্লা-চাঁদপুর আঞ্চলিক মহাসড়ক পার হতে গিয়ে চাঁদপুর থেকে কুমিল্লাগামী বোগদাদ পরিবহনের একটি বাস তাকে চাপা দিলে গুরুতর আহত হন তিনি। খবর পেয়ে হাজীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের দমকল কর্মীরা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসা মৃত ঘোষণা করেন।

খবর পেয়ে থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) জয়নাল আবেদীন, ঘাতক বাসটিকে জব্দ করে এবং নিহতের মরদেহ সুরতহাল রিপোর্ট শেষে মরদেহটি থানা হেফাজতে নিয়ে আসে।

হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আলমগীর হোসেন রনি জানান, ঘাতক বাসটিকে জব্দ এবং নিহতের মরদেহ থানা হেফাজতে রয়েছে। পরবর্তীতে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা