kalerkantho

বুধবার । ২৯ জানুয়ারি ২০২০। ১৫ মাঘ ১৪২৬। ৩ জমাদিউস সানি ১৪৪১     

জকিগঞ্জে 'রহস্যজনক আগুনে' দগ্ধ হয়ে গৃহবধূর মৃত্যু

জকিগঞ্জ (সিলেট) প্রতিনিধি   

১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৩:২৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জকিগঞ্জে 'রহস্যজনক আগুনে' দগ্ধ হয়ে গৃহবধূর মৃত্যু

সিলেটের জকিগঞ্জে রহস্যজনক আগুনে দগ্ধ হয়ে জুলফা ইয়াসমিন মৌসুমী (২২) নামে এক গৃহবধূ চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বরে) ভোর ৫টার দিকে ঢাকা বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে তিনি মারা যান।

এর আগে গত ৮ ডিসেম্বর রবিবার দিবাগত রাত ৪টার দিকে উপজেলার কাজলসার ইউনিয়নের পশ্চিম গোটারগ্রামের মোকাম বাড়িতে স্বামীর বাড়ির বাথরুমে রহস্যজনক আগুনে জুলফা আক্তার মৌসুমী দগ্ধ হন। তাৎক্ষণিক তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় জকিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং সোমবার সকালে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। মঙ্গলবার মৌসুমীকে ঢাকা বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার ভোরে তিনি মারা যান।

নিহতের বাবা জকিগঞ্জ উপজেলার ৭ নম্বর বারঠাকুরী ইউনিয়নের দেবোত্তর গ্রামের আব্দুল জলিল (জলু মিয়া) জানান, ২০১৬ সালের ১২ অক্টোবর তার বড় মেয়ে মৌসুমীকে একই উপজেলার ৩ নম্বর কাজলসার ইউনিয়নের পশ্চিম গোটারগ্রামের মোকাম বাড়ির মৃত গিয়াস উদ্দিনের (সোহাগ মিয়া) ছেলে আব্দুল মুমিত মাহিন (২৭) বিয়ে দেন।

তিনি বলেন, আমার মেয়েকে হত্যা করা হয়েছে। বিষয়টি জকিগঞ্জ থানাকে অবগত করেছি। আমি ন্যায় বিচার চাই।

অভিযুক্ত স্বামী মাহিন একটি কেজি স্কুলের শিক্ষক। চিকিৎসার সময় তিনি স্ত্রীর সাথেই ছিলেন। স্ত্রীর অগ্নিদগ্ধের ঘটনাটি তার কাছে রহস্যজনক। তিনি বলেন, বাথরুমের গ্যাস বিস্ফোরণ না অন্য কারণে আগুন লেগেছে তা আমি বুঝতে পারছি না।

এদিকে নির্মম এ ঘটনাটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড না আত্মহত্যা না ভিন্ন কিছু এ নিয়ে এলাকায় চলছে নানা আলোচনা।

জকিগঞ্জ থানার ওসি মীর মো. আব্দুন নাসের বলেন, খবর পেয়ে থানার ওসি (তদন্ত) সুশংকর পালসহ পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তদন্ত সাপেক্ষে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা