kalerkantho

মঙ্গলবার । ২১ জানুয়ারি ২০২০। ৭ মাঘ ১৪২৬। ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

'কার কী তাতে?'

রংপুর অফিস   

১২ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১২:০১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'কার কী তাতে?'

রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষে ভর্তিতে দুর্নীতির অভিযোগ সুষ্ঠু তদন্তের দাবিতে গড়ে ওঠা 'সচেতন শিক্ষকবৃন্দ' নামের সংগঠনটি বুধবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের রাসেল চত্বরে একটি ভিন্নধর্মী কমসূচি পালন করেছে। 'কার কী তাতে?' শিরোনামে একটি বোর্ড তারা উন্মুক্ত করেন। বোর্ডটির মোড়ক উন্মোচন করেন বাণিজ্য অনুষদের সাবেক ডিন অধ্যাপক ড. মতিউর রহমান। এর পর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে সর্বসাধারণের প্রদর্শনের জন্য তা টাঙানো হয়। বোর্ডটিতে ২১টি পয়েন্টে অনিয়ম-দুর্নীতির আশঙ্কার কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

বোর্ডটিতে অভিযুক্ত পরীক্ষার্থীর বাসায় উপাচার্যের যাওয়া, যোগ্য শিক্ষক থাকা সত্ত্বেও তাঁদের দায়িত্ব না দিয়ে বিধি লঙ্ঘন করে সংশ্লিষ্ট সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন এবং সমাজবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান পদে উপাচার্যের থাকার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। প্রচার বোর্ডটিতে ভর্তি পরীক্ষায় অস্বচ্ছতার অভিযোগ, জ্যেষ্ঠ শিক্ষকদের বাদ দিয়ে নতুন শিক্ষকদের দ্বারা ভর্তিকার্যক্রম করানোর বিষয়টিও উঠে এসেছে। একজন শিক্ষার্থী শুধু নয়, অনেক শিক্ষার্থী দুর্নীতির আশ্রয়ে ভর্তি হয়ে থাকতে পারে মর্মেও বোর্ডটিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

বোর্ডের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. তুহিন ওয়াদুদ, গণিত বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক কমলেশ চন্দ্র রায়, রসায়ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান এইচ এম তারিকুল ইসলাম, গণিত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মশিউর রহমান। বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের বিভাগীয় প্রধান খায়রুল কবীর সুমন অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন। 

বক্তারা তদন্ত কমিটি ভেঙে দিয়ে নতুন করে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন একটি তদন্ত কমিটি গঠনের দাবি জানান। একই সাথে 'বি' ইউনিটের ভর্তিকার্যক্রম বন্ধ রাখার দাবিও জানান তাঁরা।

উল্লেখ্য, বিশ্ববিদ্যালয়ে এ বছর দুই ইউনিটে ফেল করা মেশকাতুল জান্নাত নামের একজন শিক্ষার্থী 'বি' ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকার করে সমাজবিজ্ঞান বিভাগে ভর্তি হয়েছে। অভিযোগের কারণে তার ভর্তি স্থগিত করা হয়। তিনি এ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক ইমরানা বারীর ছোট বোন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা