kalerkantho

মঙ্গলবার । ২১ জানুয়ারি ২০২০। ৭ মাঘ ১৪২৬। ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

দিনাজপুরে দুদকের জালে উপ-সহকারী প্রকৌশলী ও ঠিকাদার

দিনাজপুর প্রতিনিধি   

১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৭:৪০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দিনাজপুরে দুদকের জালে উপ-সহকারী প্রকৌশলী ও ঠিকাদার

সমন্বিত দিনাজপুর জেলা দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) অভিযান চালিয়ে এক উপ সহকারী প্রকৌশলী ও একজন ঠিকাদারকে গ্রেপ্তার করেছে। তাদের একাধীক প্রকল্পের ১৫ লক্ষ ৮৭ হাজার ৭২১ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

আজ বুধবার বিকেলে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) সমন্বিত দিনাজপুর জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক আবু হেনা আশিকুর রহমান তাদেরকে গ্রেপ্তার করেন।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- দিনাজপুর জেলা মৎস্য অফিসের উপ সহকারী প্রকৌশলী মো. মঞ্জুরুল ইসলাম। তিনি বিরল উপজেলার বালন্দর গ্রামের মৃত আব্দুল মজিদের ছেলে। অপর জন মো. আফসার আলী। তিনিও বিরল উপজেলার ফরক্কাবাদ গ্রামের মৃত ইয়াকুব আলী। তিনি পেশায় ঠিকাদার। তিনি মের্সাস দ্বীপ এন্টারপ্রাইজ পরিচালনা করেন।

সমন্বিত দিনাজপুর জেলা দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলা সূত্রে জানা যায়, গ্রেপ্তারকৃতরা পরস্পর যোগসাজসে পুলহাট মৎসবীজ উৎপাদন খামারের ৪টি পুকুর পুনখনন বাবদ ৭ লাখ ৫৯ হাজার ৮৪৫/২০ টাকা, সীমানা প্রাচীর নির্মাণ বাবদ ৭৯ হাজার ৯২৫/৭৪ টাকা এবং ৪টি পুকুর পুনখননের সময় উত্তোলিত বালু বিক্রির ৭ লাখ ৪৭ হাজার ৯৫০ টাকা আত্মসাত করেন।

সমন্বিত দিনাজপুর জেলা দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)  প্রাথমিক তদন্ত শেষে ৪ জনের নামে মামলা করার জন্য প্রধান কার্যারয়ের অনুমতি চেয়ে আবেদন করেন। বুধবার অনুমতি পেয়ে মামলা রেকর্ড করেন। মামলার অপর আসামিরা হলেন- পুলহাট মৎস্যবীজ উৎপাদন খামারের ব্যবস্থাপক মো. ফয়জার রহমান ও মের্সাস দ্বীপ এন্টারপ্রাইজের সত্ত্বাধীকারী দীলরুবা আলী।

সমন্বিত দিনাজপুর জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক আবু হেনা আশিকুর রহমান তাদেরকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা