kalerkantho

মঙ্গলবার । ২১ জানুয়ারি ২০২০। ৭ মাঘ ১৪২৬। ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

ধামরাইয়ে অপহরণের চারদিনেও উদ্ধার হয়নি শিশু মুবিন

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি   

১০ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২৩:৪৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ধামরাইয়ে অপহরণের চারদিনেও উদ্ধার হয়নি শিশু মুবিন

ঢাকার ধামরাইয়ে চার দিন আগে মুবিন নামের পাঁচ বছরের এক শিশু নতুন জামা ও প্যান্ট পরে মায়ের কাছ থেকে পাঁচ টাকা নিয়ে বাড়ির পাশে দোকানে যায় মজা কিনতে। কিন্তু এরপর আর বাড়িতে ফিরে আসেনি। তাকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে পায়নি তার স্বজনরা।

এ ঘটনায় ওই দিন রাতে থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছে মুবিনের এক স্বজন। এদিকে ওইদিন রাতেই তাদের টয়লেটের কাছে  পাওয়া গেছে একটি চিরকুট। এতে লেখা ছিল ‘মুবিনের কথা ২৪ ঘণ্টা স্মরণ রাখবে’। এছাড়া একটি মোবাইল নম্বরও লেখা ছিল তাতে। পুলিশ উদ্ধারের তৎপরতা চালিয়েও তার কোনো সন্ধান দিতে পারেনি। এতে স্বজনরা উদ্বেগ আর উৎকণ্ঠায় দিন পার করছে। মাঝেমাঝে মুবিনের মা জ্ঞান হারিয়ে ফেলছে।

ঘটনাটি ঘটেছে গত শনিবার উপজেলার বাইশাকান্দা ইউনিয়নের মঙ্গলবাড়ি গ্রামে। অপহৃত শিশু প্রবাসী আবদুল করিমের ছেলে। এদিকে সোমবার রাতে মুবিনের মামা সোহেল মাহমুদ বাদি হয়ে ধামরাই থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন।

স্বজনদের কাছ থেকে জানা গেছে, মুবিন মায়ের কাছ থেকে পাঁচ টাকা নিয়ে দোকানে যায় মজা কিনতে। এরপর সে আর বাড়ি ফেরেনি। তাকে সম্ভাব্য স্থানে খোঁজে পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। পরে একটি মামলাও হয়েছে।

মুবিনের মা রওশন আরা জানান, তার ছেলে মুবিনকে সকালে নতুন জামা ও প্যান্ট কিনে দেওয়া হয়েছে। ওই জামা-কাপড় পড়ে সে আমার কাছ থেকে পাঁচ টাকা নিয়ে দোকানে যায় মজা কিনতে। এর আগে মুবিন আমার কাছে ভাপা পিঠা খেতে চেয়েছে। ছেলের মর্জিতে মা পিঠা তৈরিও করেছে। কিন্তু পিঠে খাওয়া হয়নি তার।

মুবিনের চাচাতো ভাই সামিউল আলীম জানান, মুবিনকে একটি মাইক্রোতে তুলে নিয়ে গেছে বলে দেখেছে মুবিনেরই সমবয়সী সাইদুর রহমান নামে এক শিশু। 

এ বিষয়ে ধামরাই থানার অফিসার ইনচার্জ দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, একটি অপহরণ মামলা রুজু করা হয়েছে। শিশুটিকে উদ্ধারে বিভিন্ন স্থানে অভিযান অব্যাহত আছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা