kalerkantho

রবিবার । ১৯ জানুয়ারি ২০২০। ৫ মাঘ ১৪২৬। ২২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

কুমিল্লায় র‍্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত, ৮ প্রতারকের দণ্ড

অনলাইন ডেস্ক   

১০ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৯:০২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কুমিল্লায় র‍্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত, ৮ প্রতারকের দণ্ড

বিপুল পরিমাণ জাল রাজস্ব স্ট্যাম্প, কোর্ট ফি এবং বিভিন্ন অফিসের গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্রসহ জালিয়াত চক্রের সক্রিয় পাঁচ সদস্যকে আটক করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন ১১, ক্রাইম প্রিভেনশন কম্পানি (সিপিসি) ২, কুমিল্লা ক্যাম্প পরিচালিত একটি ভ্রাম্যমাণ আদালত। কুমিল্লা জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) পিন্টু বেপারীর নেতৃত্বে বেশ ক'জন নির্বাহী হাকিম পদমর্যাদার কর্মকর্তা এই বিশেষ ভ্রাম্যমাণ আদালতে উপস্থিত ছিলেন। আর র‍্যাব ১১ এর পক্ষ থেকে অভিযানটির সমন্বয় করেন সিপিসি ২ এর কম্পানি কমান্ডার ও কুমিল্লা ক্যাম্প কমান্ডার মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব।

আটককৃত জালিয়াতরা হলেন এইচ এম হোসাইন আহমেদ (৭০), আল আমিন (২৫), মো. মনির ভেন্ডার (৪২), মো. মোতাহের হোসেন (৮০) ও মো. শহিদুল ইসলাম (৫০)। এ সময় এডিএম কর্তৃক জাল রাজস্ব স্ট্যাম্প, কোর্ট ফি এবং বিভিন্ন অফিসের গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্র জালিয়াতির অভিযোগে পাঁচ আসামিকে মোট ২১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এ ছাড়াও দুপুরে কুমিল্লা ক্যাম্পের আরেকটি অভিযানে কোতোয়ালি থানা এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে বিআরটিএ, কুমিল্লার দালালচক্রের সক্রিয় সদস্য অলক কুমার সাহা (৫০), মো. লিটন মিয়া (৪০) ও মো. মাহবুবুর রহমান (৪২)-কে আটক করে। এ সময় কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের ম্যাজিস্ট্রেট ১ নম্বর আসামিকে ২০,০০০/- টাকা জরিমানা ও ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড, ২ নম্বর আসামিকে ৪৫,০০০/- টাকা জরিমানা ও ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড এবং ৩ নম্বর আসামিকে ৫০,০০০/- টাকা জরিমানা করেন।  

ভ্রাম্যমাণ আদালত কর্তৃক দণ্ডপ্রাপ্ত অলক কুমার সাহা (৫০) ও মো. লিটন মিয়া (৪০)-কে কুমিল্লা কেন্দ্রীয় কারাগারে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা