kalerkantho

শনিবার । ২৫ জানুয়ারি ২০২০। ১১ মাঘ ১৪২৬। ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

চেক জালিয়াতি ও অর্থ আত্মসাত মামলায়

ধুনটে সাজাপ্রাপ্ত স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি গ্রেপ্তার

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি   

৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৯:০৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ধুনটে সাজাপ্রাপ্ত স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি গ্রেপ্তার

চেক জালিয়াতি ও অর্থ আত্মসাত মামলায় সাজার আদেশপ্রাপ্ত আসামি বগুড়ার ধুনট উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সুলতান মাহমুদকে (৩৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সুলতান মাহমুদ উপজেলার সদরপাড়া গ্রামের আজিবর রহমানের ছেলে।

আদালতের গ্রেপ্তারীপরোয়ানামুলে রবিবার মধ্যরাতে নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। সোমবার সকাল ১১টার দিকে ধুনট থানা থেকে আদালতের মাধ্যমে তাকে বগুড়া জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সুলতান মাহমুদ ২০১৭ সালে ধুনট উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মনোনীত হন। এরপর থেকে তিনি প্রশাসনিক তদবির ও নিয়োগ বাণিজ্যসহ বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়েন। তার বিরুদ্ধে মন্ত্রী, এমপি, প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের নাম ভাঙিয়ে পুলিশ কনস্টেবল, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক, স্বাস্থ্য বিভাগসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরি দেওয়ার নামে একাধিক ব্যক্তির কাছ থেকে প্রায় কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার একাধিক মামলা রয়েছে।

এসব চাকরি প্রার্থীদের নিকট থেকে টাকা নেওয়ার সময় সুলতান মাহমুদ রূপালী ব্যাংক ধুনট শাখায় তার সঞ্চয়ী হিসাবের (নং-১৩৬) চেক দিয়েছেন। কিন্তু তার ওই ব্যাংক হিসাব নম্বরে কোনো টাকা জমা ছিল না। পরে প্রার্থীরা চাকরি না পেয়ে ওই ব্যাংক শাখায় চেক নগদায়ন করতে গিয়ে অপর্যাপ্ত তহবিলের কারণে টাকা উত্তোলন করতে ব্যর্থ হয়ে তার বিরুদ্ধে বগুড়া যুগ্ম দায়রা জজ আদালতে চেক জালিয়াতি ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে একাধিক মামলা দায়ের করেছে। এরমধ্যে একটি মামলায় আদালত ৭ নভেম্বর তার বিরুদ্ধে ৯ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়ে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারি করে।

ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইসমাইল হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, আদালতের গ্রেপ্তারী পরোয়ানা মূলে এক বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামি সুলতান মাহমুদকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা