kalerkantho

শনিবার । ২৫ জানুয়ারি ২০২০। ১১ মাঘ ১৪২৬। ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

স্বামীর বর্বর নির্যাতন, হাসপাতালে কাতরাচ্ছে গৃহবধূ

গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি   

৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৮:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্বামীর বর্বর নির্যাতন, হাসপাতালে কাতরাচ্ছে গৃহবধূ

নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার মশিন্দা শিকারপাড়া গ্রামের গৃহবধূ এক সন্তানের জননী রুপালী খাতুন (২৪) যৌতুকের দাবি মেটাতে না পারায় স্বামীর নির্যাতনের শিকার হয়ে রবিবার দুপুরে পালিয়ে এসে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন। একনাগাড়ে তিন দিন স্বামীর অমানবিক নির্যাতনের শিকার হন রুপালী।

নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ জানান, ৬ বছর আগে শিকারপাড়া গ্রামের মৃত খানমামুদ মন্ডলের ছেলে জাহাঙ্গীর মন্ডলের (৩০) সাথে ৯৫ হাজার টাকা যৌতুকের বিনিময়ে বিয়ে হয়। বিয়ের এক বছর পর ইমরান (৫) নামের এক সন্তান জন্ম নেয়। সন্তানটির জন্মের পর থেকেই যৌতুকের টাকার জন্য রুপালীকে মারপিট করে বাপের বাড়ি পাঠায় তার স্বামী।

রুপালী আরো জানায়, ঘটনার দিন শুক্র-শনি ও রবিবার তাকে বেধড়ক মারপিট করে পাষণ্ড স্বামী। নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে সন্তানকে বাবার বাড়িতে রেখে স্বামীর বাড়ি থেকে পালিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আসেন। তিনি মারপিটের যন্ত্রণায় হাসপাতালের বেডে কাতরাচ্ছেন।

রুপালীর পিতা চাঁচকৈড় খলিফাপাড়া মহল্লার দিনমজুর আবদুল মতিন জানান, তার মেয়েকে বিয়ের পর থেকেই মারপিট করে যৌতুকের টাকা চেয়ে আসছিল। আমার সন্তানের ওপর অমানবিক নির্যাতনের বিচার চাই।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা