kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জানুয়ারি ২০২০। ১৪ মাঘ ১৪২৬। ২ জমাদিউস সানি ১৪৪১     

জরিমানার শর্তে অঙ্গীকারনামায় একদিন পর মুক্তি

রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি   

৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২০:৩৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জরিমানার শর্তে অঙ্গীকারনামায় একদিন পর মুক্তি

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় জাটকাসহ আটক এক ব্যক্তিকে একদিন পর জরিমানা করার শর্তে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। আজ রবিবার সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় তাকে হাজির করার পর এ ঘটনা ঘটে। তবে এভাবে অঙ্গীকারনামায় নিয়ে ছেড়ে দেওয়ার আইনি বিধান রয়েছে কিনা এর কোনো সঠিক জবাব দিতে পারেনি সংশ্লিষ্টরা।

জানা গেছে, রবিবার বিকেলে উপজেলা মৌডুবির নিজকাটা বাজারের হারুন মৃধার মালিকানাধীন মৎস্য আড়তে অভিযান চালায় পুলিশ। এ সময় ৪০ কেজি জাটকা মাছ উদ্ধার করা হয়। একই সঙ্গে ওই আড়তের কর্মচারী শহিদ বিশ্বাসকে আটক করে পুলিশ। সন্ধ্যা সাড়ে ৫টায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করার জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় মাছ ও আটককৃত ওই ব্যক্তিকে হাজির করা হয়। কিছুক্ষণ পর উপজেলা পরিষদের সাঁট মুদ্রাক্ষরিক কাম কম্পিউটার অপারেটর মো. আল-আমিন তার নিজের কক্ষে আটক শহিদ বিশ্বাসকে অঙ্গীকারনামায় স্বাক্ষর রেখে একদিন পর (সোমবার) জরিমানা করা হবে বলে শর্ত দিয়ে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

এ বিষয়টি নিয়ে তাৎক্ষণিক উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে সমালোচনার ঝড় বইছে। তবে উদ্ধারকৃত মাছগুলো এতিমখানা ও দুস্থ্য পরিবারের মধ্যে বিতরণ করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালতে বিনাদণ্ডে শর্ত সাপেক্ষে কিভাবে মুক্তি পেল জানতে চাইলে শহিদ বিশ্বাস বলেন, ‘আমাকে নিয়ে আপনারা কেন টানা হেঁচড়া করছেন ক্যা? আমিতো কর্মচারী। আমাকে দুই হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।’

জরিমানার রশিদ দেখতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমাকে কালকে আসতে বলছে।’

এ ব্যাপারে রাঙ্গাবালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আলি আহম্মেদ বলেন, আমরা উদ্ধারকৃত মাছসহ আটককৃত ওই ব্যক্তিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সোপর্দ করেছি।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাশফাকুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাকে না পাওয়া মন্তব্য নেওয়া যায়নি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা