kalerkantho

মঙ্গলবার । ২১ জানুয়ারি ২০২০। ৭ মাঘ ১৪২৬। ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

বিশ্বনাথে পূর্ব বিরোধের জেরে দু'পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ১৫

বিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি   

৭ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২১:৫৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিশ্বনাথে পূর্ব বিরোধের জেরে দু'পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ১৫

সিলেটের বিশ্বনাথে পূর্ব বিরোধের জের ধরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে নারীসহ অনন্ত ১৫ জন আহত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। আজ শনিবার বিকেলে উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের ধনপুর গ্রামের দবির মিয়া ও ইলিয়াস আলীর লোকজনের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন ইলিয়াস আলী পক্ষের ইলিয়াস আলী, ইছহাক আলী, আবদুল কাদির, আবদুল মতলিব, আবদুল আহাদ, সাজ্জাদ মিয়া, খালিক মিয়া, আল-আমিন, ছালেতুন নেছা, দবির মিয়ার পক্ষের শাহাব উদ্দিন, সাগর আলী, রিপন আলী।

বাকি আহতদের নাম জানা যায়নি। এরই মধ্যে গুরুতর আহত ইলিয়াস মিয়া ও ইছহাক মিয়াকে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। তবে অন্য আহতরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা গ্রহণ করেছে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে স্থানীয় ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেন ধন মিয়া বলেন, খবর পেয়ে আমি স্থানীয় লোকজনকে নিয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যাই। বিষয়টি আপস-মিমাংসার চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানান।

জানা গেছে, উপজেলার ধনপুর গ্রামের দবির মিয়া ও ইলিয়াস মিয়া লোকজনের মধ্যে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। এরই জের ধরে শনিবার বিকেলে উভয় পক্ষের লোকজনের মধ্যে প্রথমে কথা কাটাকাটি হয়। এরই এক পর্যায়ে লাঠি-সোটা নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এ সময় পাল্টা-পাল্টি ইটপাটকেল নিক্ষেপ করা হয়। এতে উভয় পক্ষের নারীসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত স্থানীয়রা বিষয়টি আপস-মিমাংসার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে স্থানীয়রা জানান।

এ ব্যাপারে দৌলতপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমির আলী বলেন, আমি উপজেলা সদরের অবস্থান করছি। বিষয়টি শুনেছি। তবে এলাকায় গিয়ে খোঁজ নিয়ে বিষয়টি দেখব।

সংঘর্ষের সত্যতা স্বীকার করে বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শামীম মুসা বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। তবে অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।   

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা