kalerkantho

বুধবার । ২৯ জানুয়ারি ২০২০। ১৫ মাঘ ১৪২৬। ৩ জমাদিউস সানি ১৪৪১     

বন্ধুর ছুরিকাঘাতে বন্ধু খুন; নেপথ্যে কী?

ফেনী প্রতিনিধি   

৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৯:৪২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বন্ধুর ছুরিকাঘাতে বন্ধু খুন; নেপথ্যে কী?

পুলিশের হাতে আটক জসিম উদ্দিন (১৮)।

ফেনীর ফুলগাজীতে বন্ধুর ছুরিকাঘাতে মাসুদ রানা ওরফে মানিক (১৯) নামে একজন নিহত হয়েছেন। বুধবার রাতে উপজেলার আমজাদ হাট ইউনিয়নের কিল্লার দিঘি এলাকা এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ জসিম উদ্দিন (১৮) নামে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, উপজেলার আমজাদ হাট ইউনিয়নের উত্তর ধর্মপুর গ্রামের মানিক ও জসিম নামের দুই বন্ধু ফেসবুকে ‘কিল্লার দিঘি স্পোর্টিং ক্লাব’ নামে একটি গ্রপ আইডি হতে চ্যাট করতেন। এক সময় নারী বন্ধুর ইমু নম্বরকে কেন্দ্র করে দু’জনের ভেতর সন্দেহ সৃষ্টি হয়।

বুধবার রাত ৯টার দিকে জসিম উদ্দিন তার বন্ধু মাসুদ রানা ওরফে মানিককে মুঠোফোনে আমজাদ হাট ইউনিয়নের কিল্লা দিঘি এলাকা আসতে বলেন। আসার পর একপর্যায়ে দুজনের বাকবিতণ্ডা হয়। এমন সময় জসিম উদ্দিন তার বন্ধু মানিককে বুকের বাঁ পাশে ও ঘাড়ে ধারাল ছুরির দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যায়। আহত মানিকের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে উদ্ধার করে প্রথমে ছাগলনাইয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ফেনী সদর হাসপাতালে পাঠান। ফেনী হাসপাতালে নেওয়ার কিছুক্ষণ পরই তিনি মারা যান। এ ঘটনায় নিহতের বাবা জসিম উদ্দিন বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার ফুলগাজী থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

এই ঘটনার পর পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে দরবারপুর ইউনিয়নের জগতপুর গ্রামের একটি মসজিদ থেকে ঘুমন্ত অবস্থায় জসিম উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে। জসিম উত্তরধর্মপুর গ্রামের কফিল উদ্দিনের ছেলে। তবে পুলিশ বৃহস্পতিবার দুপুরে গ্রেপ্তারের কথা স্বীকার করে এবং জসিমকে গণমাধ্যমকর্মীদের সামনে উপস্থাপন করে।

ফুলগাজী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ কুতুব উদ্দীন জানান, প্রেম বিষয়ক বিরোধের জের ধরে মানিক খুন হতে পারে। বৃহস্পতিবার গ্রেপ্তার জসিমকে ফেনীর বিচারিক হাকিম আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। একই দিন ময়নাতদন্ত শেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা