kalerkantho

সোমবার । ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ১ পোষ ১৪২৬। ১৮ রবিউস সানি                         

হাতীবান্ধায় জমির জন্য প্রাণ গেল যুবকের

হাতীবান্ধা (লালমনিরহাট) প্রতিনিধি   

৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৯:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হাতীবান্ধায় জমির জন্য প্রাণ গেল যুবকের

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় জমি নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় গুরুতর আহত শামীম হোসেন (২৫) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এ ঘটনায় পুলিশ উভয় পক্ষের দুজনকে আটক করে জেলহাজতে প্রেরণ করেছেন। বুধবার সকালে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এর আগে গত ২৯ নভেম্বর ওই উপজেলার বড়খাতা ইউনিয়নের দোলাপাড়া এলাকায় একটি জমি দখলকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে শামীম হোসেনসহ দুই পক্ষের তিনজন আহত হন। নিহত শামীম হোসেন উপজেলার পূর্ব ফকিরপাড়া গ্রামের আমিনুর রহমানের পুত্র। 

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন উপজেলার পূর্ব সারডুবি গ্রামের মৃত আফছার উদ্দিনের পুত্র শহিদুল ইসলাম ও দোলাপাড়া গ্রামের এয়াজুল ইসলামের পুত্র হুমায়ন।  

জানা গেছে, উপজেলার দোলাপাড়া গ্রামের আব্দুর রহমানের সাথে তোয়াব ও তৈয়ব আলীর ১৭ শতক জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এ জমি নিয়ে একটি মামলায় আব্দুর রহমানকে গত ২৮ নভেম্বর জেলহাজতে প্রেরণ করে পুলিশ। এর পরের দিন ২৯ নভেম্বর সেই জমি দলবল নিয়ে দখল করতে যায় তোয়াব ও তৈয়ব আলীর লোকজন। এ সময় আব্দুর রহমানের পরিবারের লোকজন বাধা দিলে তাদেরকে মারধর করা হয়। এতে আব্দুর রহমানের স্ত্রী নূরজাহান বেগম, তার ছেলের শ্যালক শামীম হোসেন ও ওই পক্ষের তৈয়ব আলী আহত হয়। পুলিশ এ ঘটনায় উভয় পক্ষের দুজনকে আটক করে জেলহাজতে প্রেরণ করেন। এ দিকে বুধবার সকালে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শামীম হোসেনের মৃত্যু হয়।

হাতীবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর ফারুক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় দুটি মামলা হয়েছে। ঘটনার দিন রাতে পুলিশ উভয় পক্ষের দুজনকে গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে। শামীমের মৃত্যুর ঘটনায় অন্য আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্ট করা হচ্ছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা