kalerkantho

মঙ্গলবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১২ রবিউস সানি     

রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকায় পর্যটকবাহী বাসে হামলা, আহত ৪

বিশেষ প্রতিনিধি, কক্সবাজার   

৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২২:৫৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকায় পর্যটকবাহী বাসে হামলা, আহত ৪

ছবি: কালের কণ্ঠ

কক্সবাজার-টেকনাফ মহাসড়কের উখিয়ার পালংখালী ইউনিয়নের ১৬ নম্বর শফিউল্লাহকাটা রোহিঙ্গা শিবির এলাকায় মুখোশধারীরা কক্সবাজারগামী একটি পর্যটকবাহী বাসে (কক্স-জ-১১-০২১৮) ইট-পাটকেল হামলা চালিয়েছে। এ ঘটনায় ৪ জন পর্যটক আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ঘটে এ ঘটনা।

জানা গেছে, মুখোশধারী একদল ডাকাত পর্যটকবাহী গাড়িটির গতিরোধ করার চেষ্টা করেছিল। এ সময় চালক দ্রুতগতিতে বাসটি চালিয়ে দিলে মুখোশধারীরা ঢিল নিক্ষেপ করে। তখন গাড়িতে থাকা ছেলে-মেয়েসহ ৪ জন পর্যটক আহত হন।
  
তবে তাৎক্ষণিক আহতদের নাম ঠিকানা পাওয়া যায়নি। আহতরা উখিয়ার এক প্রাইভেট ক্লিনিক থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে বলে জানান প্রত্যক্ষদর্শীরা। এ নিয়ে উখিয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানা গেছে। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। তবে কে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা জানা যায়নি।

বাসের ড্রাইভার জানিয়েছেন, টেকনাফ থেকে পর্যটক নিয়ে কক্সবাজার আসার সময় পালংখালী ইউনিয়নের শফিউল্লাহকাটা-১৬ নং ক্যাম্পের পাশে পৌঁছলে মুখোশধারী কিছু অজ্ঞাত লোক গাড়ির গতিরোধ করার জন্য সংকেত দিলে আমি তাদের অবস্থা বেগতিক দেখে দ্রুতগতিতে চলে আসার সময় তারা গাড়িতে ঢিল নিক্ষেপ করে। এ সময় শিশুসহ চারজন পর্যটক আহত হয়েছে। আমি বিষয়টি আইন-শৃংখলা বাহিনীসহ পরিবহন সংগঠনের নেতৃবৃন্দদের অবহিত করেছি। এ ঘটনায় উখিয়া থানায় একটি অভিযোগ দেওয়া হচ্ছে বলে তিনি জানিয়েছেন। 

তিনি আরো বলেন, মুখোশধারীরা ডাকাতির উদ্দেশে হয়তো গাড়িটি গতিরোধ করার চেষ্টা করেছে। যাত্রীরা সেন্ট মার্টিনস থেকে কক্সবাজার যাচ্ছিল। মুখোশধারীরা রোহিঙ্গা বলেও চালকের সন্দেহ। কেননা সন্নিকটে রোহিঙ্গা ক্যাম্প সেজন্য রোহিঙ্গা ছাড়া কেউ এই কাজ করার সাহস করবে না বলে তিনি জানান। 

উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবুল মনসুর বলেন, অভিযোগ পাওয়া গেলে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা