kalerkantho

সোমবার । ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ১ পোষ ১৪২৬। ১৮ রবিউস সানি                         

১১ দফা বাস্তবায়নের দাবি

খুলনায় রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকদের ধর্মঘট চলছে

টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৪:৩৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



খুলনায় রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকদের ধর্মঘট চলছে

মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন, বকেয়া পাওনা পরিশোধ, অস্থায়ী শ্রমিকদের স্থায়ীকরণসহ ১১ দফা বাস্তবায়নের দাবিতে আজ মঙ্গলবার (৩ ডিসেম্বর) খুলনায় ধর্মঘট পালন করছে রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকরা।

ধর্মঘট শুরু হয়েছে সকাল ৬টায়। চলবে আগামীকাল বুধবার সকাল ৬টা পর্যন্ত। ধর্মঘটের ফলে সব মিলের উৎপাদন বন্ধ রয়েছে।

শ্রমিকদের অন্য দাবির মধ্যে রয়েছে পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ (পিপিপি) বাতিল, অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক, কর্মচারী ও কর্মকর্তাদের পিএফ গ্র্যাচুইটির টাকা প্রদান, শ্রমিকদের সাপ্তাহিক মজুরি নিয়মিত পরিশোধ, পাট মৌসুমে পাট কেনার অর্থ বরাদ্দ, মিল আধুনিকীকরণ, জুট গুডস ম্যান্ডেটরি অ্যাক্ট বাস্তবায়ন।

ধর্মঘট উপলক্ষে সকালে শ্রমিকরা ক্রিসেন্ট, প্লাটিনাম, খালিশপুর, দৌলতপুর, স্টার, ইস্টার্ন, আলিম এবং যশোরের জেজেআই ও কার্পেটিং জুট মিলের সামনে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করে। কর্মসূচি অনুযায়ী বিকেল ৪টায় সব মিলের গেটে সভা অনুষ্ঠিত  হবে বলে জানিয়েছেন শ্রমিক নেতারা।

একই দাবিতে আগামী রবিবার আমরণ অনশন এবং ১০ ডিসেম্বর সকাল ৮টা থেকে শ্রমিকদের পরিবার-পরিজন নিয়ে প্রত্যেক মিল গেটে আমরণ গণঅনশনের কর্মসূচি পালন করা হবে।

রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল সিবিএ-নন সিবিএ সংগ্রাম পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. মুরাদ হোসেন বলেন, খুলনা অঞ্চলের ৯টি পাটকলের প্রায় ৩০ হাজার শ্রমিকের ৯ থেকে ১২ সপ্তাহের মজুরি বকেয়া রয়েছে।

এ ছাড়া সহস্রাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারীর ২ থেকে ৪ মাসের বেতন বকেয়া রয়েছে। এর ফলে শ্রমিক-কর্মচারীরা তাদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে অর্ধাহারে-অনাহারে দিন কাটাচ্ছেন। কয়েকবার আশ্বাস দেওয়ার পরও বিজেএমসি এখনো পাটকল শ্রমিকদের মজুরি কমিশন কার্যকর করেনি। ফলে বাধ্য হয়ে আন্দোলন কর্মসূচি গ্রহণ করতে হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা