kalerkantho

বুধবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৩ রবিউস সানি     

প্রশংসা কুড়িয়েছে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২২ নভেম্বর, ২০১৯ ২০:১৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রশংসা কুড়িয়েছে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ

গত বৃহস্পতিবার ‘ই’ ইউনিটের পরীক্ষার মধ্যদিয়ে এ বছরের পাঁচটি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শেষ হয়েছে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের। এ পাঁচটি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা চলাকালে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ও অভিভাকদের পাশে দাঁড়িয়ে সুনাম কুড়িয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ। নেতা-কর্মীরা রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের পাশে থেকে সেবা করেছেন নানভাবে।

ভর্তি পরীক্ষার প্রথম দিন থেকেই বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম বাবু ও সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল হাসান রাকিবের নেতৃত্বে নেতা-কর্মীরা মাঠে নামেন। ভর্তি পরীক্ষা দিতে আসা শিক্ষার্থীদের মাঝে তথ্য প্রদান, ভর্তিচ্ছুদের জন্য ‘জয় বাংলা বাইক সার্ভিস’, বাসস্থানের ব্যবস্থা, কলম ও নিরাপদ খাবার পানির ব্যবস্থা, অভিভাবকদের ক্যাম্পাসে বসার ব্যবস্থা, ফলাফল জানানোর জন্য এবং সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নের লিফলেট প্রদানসহ নানা কর্মসূচি গ্রহণ করে। 

ছাত্রলীগের এই আয়োজনকে স্বাগত জানিয়েছেন ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী, অভিভাবকসহ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ব্যক্তিবর্গ। সেই সঙ্গে প্রশংসা কুড়িয়েছে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। ভর্তি পরীক্ষার্থী লিলিথ রায় জানান, ছাত্রলীগের এই ধরনের কর্মকাণ্ড আসলেই প্রশংসার দাবি রাখে। তারা সবাই মিলে সকল ভর্তি পরীক্ষার্থীদের সহায়তা করছেন।

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম বাবু ও সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল হাসান রাকিব কালের কণ্ঠকে জানান, দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা ভর্তি পরীক্ষা দিতে যান বিশ্ববিদ্যালয়টিতে। তারা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে সাধ্যমত সহায়তা করেছেন। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে পরীক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের বসার জায়গা করে দিয়েছেন।

তারা আরো জানান, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের প্রতিটি নেতাকর্মী পরীক্ষার্থীদের সহায়তা করেছেন। শিক্ষার্থীদের সহায়তার জন্য আবাসিক হলগুলোতে থাকার ব্যবস্থা করেছেন। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে যাওয়া ভর্তিচ্ছুদের সুবিধার কথা চিন্তা করে শিক্ষার্থীদের মাঝে বিশুদ্ধ খাবার পানি ও কলম বিতরণ করেছেন। এ ছাড়াও পরীক্ষার ফলাফল জানানোর জন্য লিফলেট এবং সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নের প্রচারপত্র বিতরণ করেছেন। ভর্তিচ্ছু কোনো শিক্ষার্থী যেন র‌্যাগিংয়ের শিকার না হন, সে দিকেও তারা নজর রেখেছেন।

ছাত্রলীগ ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদেরকে বসার ও বিশুদ্ধ খাবার পানির ব্যবস্থা করেছিল। বিভিন্ন জেলা-উপজেলার ছাত্র সংগঠনগুলোও ভর্তি তথ্য কেন্দ্র খুলে ভর্তিচ্ছুদের তথ্য প্রদানসহ বিভিন্নভাবে সহায়তা করেছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা