kalerkantho

শনিবার । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৯ রবিউস সানি ১৪৪১     

শৈল্পিক নির্মাণ, রাজমিস্ত্রীর অবদান

গাইবান্ধায় বসুন্ধরা সিমেন্টের রাজমিস্ত্রি কর্মশালা

গাইবান্ধা প্রতিনিধি   

২১ নভেম্বর, ২০১৯ ০৩:২৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গাইবান্ধায় বসুন্ধরা সিমেন্টের রাজমিস্ত্রি কর্মশালা

বক্তব্য রাখছেন রংপুর ডিভিশনের ডি এস আই হুমায়ুন কবীর। ছবি: কালের কণ্ঠ

নির্মাণ শিল্পে নির্মাণ শিল্পীদের দক্ষতা ও সচেতনতাকে এগিয়ে নিতে ’শৈল্পিক নির্মাণ, রাজমিস্ত্রীর অবদান’ শীর্ষক এক কর্মশালা গতকাল বুধবার বিকেলে পলাশবাড়ী উপজেলা সদরের ড্রিমল্যান্ড এডুকেশনাল পার্কে অনুষ্ঠিত হয়। দেশের শীর্ষ স্থানীয় শিল্পগোষ্ঠী বসুন্ধরা সিমেন্ট এই কর্মশালার আয়োজন করে। কর্মশালায় জেলার পলাশবাড়ি, গোবিন্দগঞ্জ, সাদুল্যাপুর ও গাইবান্ধার রাজমিস্ত্রীরা অংশ নেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মেসার্স আল আমীন ট্রেডার্সের হাজী আল আমীন হোসেনের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বসুন্ধরা সিমেন্টের উইং ইনচার্জ আশিক আহমেদ, রংপুর ডিভিশনের ডি এস আই হুমায়ুন কবীর, টেকনিক্যাল সাপোর্ট প্রকৌশলী শহীদ হাসান ও প্রকৌশলী মো. শফিকুর রহমান, রংপুর এরিয়ার এ এস এম আব্দুল গফুরসহ অন্য কর্মকর্তারা।

বক্তারা বলেন, ধারাবাহিক গুণগত মানের জন্য বর্তমানে দেশের সবচেয়ে আইকনিক প্রকল্প পদ্মা সেতু নির্মাণ, পদ্মা সেতু নদী শাসন, পদ্মা সেতুর অ্যাপ্রোচ রোড, মেট্ট্রো রেল, ফার্স্ট ঢাকা এলিভেটেড, এক্সপ্রেসওয়ে, রুপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ, মাতারবাড়ি বিদ্যুৎ, পদ্মা সেতুর রেল সংযোগ, পায়রা সেতু, কালনা সেতু, সাসেক রোড, ভুলতা ফ্লাইওভার, কালসী ফ্লাইওভার, রুপসা রেল সেতু, রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্পের মতো বড় স্থাপনাগুলোতে ব্যবহৃত হচ্ছে বসুন্ধরা সিমেন্ট। 

কর্মশালায় স্থাপনা নির্মাণ কৌশল এবং নির্মাণ সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে নির্মাণ শিল্পীদের পরামর্শ দেন পলাশবাড়ি স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের উপজেলা প্রকৌশলী তাহাজ্জত হোসেইন এবং পলাশবাড়ি পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী সাজ্জাদ হোসেইন। বাড়ি নির্মাণ সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় উপস্থাপন করেন প্রকৌশলী শহীদ হাসান ও প্রকৌশলী মো. শফিকুর  রহমান। রাজমিস্ত্রীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে তাদের নানা প্রশ্ন তুলে ধরেন।

অনেক রাত অবধি চলা এই কর্মশালা শেষে অংশগ্রহণকারীদের রজনীগন্ধা, টি-শার্ট উপহার দেওয়া হয়। পরে তাদের আপ্যায়নের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা