kalerkantho

শুক্রবার । ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৫ রবিউস সানি          

এই বয়সেই হৃদরোগের কাছে হার মানবে ইউসুফ?

দিনাজপুর প্রতিনিধি   

২০ নভেম্বর, ২০১৯ ২০:৩৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এই বয়সেই হৃদরোগের কাছে হার মানবে ইউসুফ?

হাঁটি হাঁটি পা পা, যেখান খুশি সেখানে যা- কবিতাটির সঙ্গে মিল নেই হৃদরোগে আক্রান্ত শিশু ইউসুফের। যে বয়সে তার হাঁটা-চলা ও বাড়ি ঘর জুড়ে ছুটে বেড়াবার কথা সেই বয়সে ভারতের ব্যাঙ্গালোরের নারায়ণা হাসপাতালের বেডে শুয়ে কাতরাচ্ছে।

অপরদিকে একই রোগে দুই সন্তানকে হারিয়ে হাসাপাতালে শিশু ইউসুফের সঙ্গে থাকা হতভাগী মায়ের চোখে জল ঝরছে সারাক্ষণ এই ভেবে যে এই বুঝি ইউসুফও অর্থের অভাবে চিকিৎসা না পেয়ে হৃদরোগের কাছে হার মানে।

ইউসুফ দিনাজপুর সদর উপজেলার ৫ নম্বর শশরা ইউনিয়নের উমরপাইল গ্রামের ব্যাটারিচালিত অটো রিকশাচালক নূর জামালের তৃতীয় সন্তান।

জানা যায়, অটোরিকশা চালক নূর জামালের তিন সন্তানের দুজন মারা গেছে দূরারোগ্য হৃদরোগে। প্রথম সন্তান ১ মাস বয়সে এবং দ্বিতীয় সন্তান জন্মের মাত্র ৯ মাসে।

বর্তমানে ২ বছর বয়সী ইউসুফের একটি ভাল্ব সম্পুর্ণ নষ্ট এবং আরেকটি নষ্ট প্রায়। মাঝে মাঝে নাক ও মুখ দিয়ে রক্ত ঝরছে। জন্মের পর থেকে জটিল হৃদরোগে আক্রান্ত ইউসুফ ধীরে ধীরে মৃত্যুর দিকে ধাবিত হচ্ছে।

জাতীয় হৃদরোগ ইনিস্টিটিউটে চিকিৎসা গ্রহণকালে চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন অপারেশনের কোনো বিকল্প নেই। প্রয়োজন আরো উন্নত চিকিৎসার। তার হার্টে বড় ফুটো VSD ও AVCD রোগে আক্রান্ত। ইউসুফের উন্নত চিকিৎসার জন্য দুটি জটিল অপারেশন করার প্রয়োজন।

দরিদ্র্য অটোরিকশা চালক বাবা দেশে চিকিৎসা করাতে গিয়ে সর্বশান্ত। এখন উন্নত চিকিৎসা করার জন্য প্রয়োজন সাত লাখ টাকা। দুটি জটিল অপারেশনের জন্য ব্যাঙ্গালোরে নারায়ণা হসপিটালে অবস্থান করছে তারা। প্রথম অপারেশনটি করার জন্য সাড়ে তিন লক্ষ টাকার প্রয়োজন। পরের অপারেশনটি ৬ মাস পরে হবে তাতে প্রয়োজন আরো ৪ লক্ষ টাকা। দুই লক্ষ টাকা বিভিন্নভাবে সংগ্রহ করেছে অটোচালক বাবা। শিশুটিকে বাঁচাতে সমাজের সর্বস্তরের মানুষদের নিকট আর্থিক সহযোগিতা কামনা করেছে শিশুটির পরিবার।

সমাজের হৃদবান ব্যক্তিরা সহযোগিতা করতে চাইলে ডাচ বাংলা ব্যাংক দিনাজপুর শাখায় চলতি হিসাব নম্বর ১৭২১০৩০০২৪৩২৭ অথবা বিকাশ (পার্সোন্যাল) ০১৭১৭০১৩৭৬৬ নাম্বারে পাটাতে পারবেন। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা