kalerkantho

শনিবার । ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৬ রবিউস সানি               

চালের বাজার তদারকির নির্দেশ বিভাগীয় কমিশনারের

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৯ নভেম্বর, ২০১৯ ০২:৪৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চালের বাজার তদারকির নির্দেশ বিভাগীয় কমিশনারের

পেঁয়াজ ও চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে না এলে প্রশাসনকে হার্ড লাইনে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার। একই সঙ্গে চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে এখনই বাজার তদারকি কার্যক্রম জোরদার এবং কেউ যেন অবৈধ সিন্ডিকেট ও মজুদদারি করতে না পারে সেদিকে সতর্ক নজর রাখতে জেলা প্রশাসকদের নির্দেশ দিয়েছেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ আবদুল মান্নান। গতকাল সোমবার নগরীর সার্কিট হাউসে চট্টগ্রাম বিভাগীয় উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ নির্দেশ দেন।

বিভাগীয় কমিশনার বলেন, পেঁয়াজের মূল্য নিয়ন্ত্রণে নেই, ধানের মূল্য নেই, অথচ চালের মূল্য বেড়ে যাচ্ছে। বাজার অস্থিতিশীল করা ও সরকারকে বেকায়দায় ফেলার জন্য অসাধু কিছু আড়তদার পেঁয়াজ ও চালের মূল্য বাড়িয়ে দিয়েছে। ম্যাজিস্ট্রেট অভিযানে গেলে দাম কমে, ম্যাজিস্ট্রেট চলে এলে আবার দাম বেড়ে যায়।

তিনি বলেন, ‘দু-এক দিনের মধ্যে কার্গো বিমানে করে দেশে পেঁয়াজ আসবে। নতুন পেঁয়াজও শিগগিরই বাজারে আসবে। এসব পণ্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণে না আসলে আমরা হার্ড লাইনে যাব। অভিযুক্ত আড়তদারদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনে বিশেষ ক্ষমতা আইনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পেঁয়াজ, চালসহ নিত্যপণ্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে জেলা প্রশাসকদের নেতৃত্বে সদরের পাইকারি ও খুচরা বাজারে এবং উপজেলাগুলোতে উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। প্রয়োজনে সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করতে হবে।’

সভায় চট্টগ্রামের সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের বিভাগীয় প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন। এতে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (সিডিএ), চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন, ওয়াসা, গণপূর্ত বিভাগ, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর, সড়ক ও জনপথ বিভাগ চট্টগ্রাম ও কুমিল্লা জোন এবং জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর তাদের চলমান উন্নয়নমূলক প্রকল্পগুলোর বর্তমান অবস্থা তুলে ধরে। এ ছাড়া বাংলাদেশ বিদ্যুত্ উন্নয়ন বোর্ড, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড, বিভাগীয় সব জেলার জেলা পরিষদের প্রধান, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, বিভাগীয় সমবায় দপ্তরসহ বিভাগীয় সব দপ্তরের প্রধানরা তাঁদের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের অগ্রগতির তুলে ধরেন।

অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) শংকর রঞ্জন সাহা, স্থানীয় সরকার বিভাগের পরিচালক দীপক চক্রবর্তী, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) মোহাম্মদ নুরুল আলম নিজামী, সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শামসুদ্দোহাসহ বিভাগের সব জেলা প্রশাসক সভায় উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা