kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৭ রবিউস সানি ১৪৪১     

হত্যাকে আত্মহনন বলে চালিয়ে দেওয়ার অভিযোগ

জকিগঞ্জ (সিলেট) প্রতিনিধি   

১৮ নভেম্বর, ২০১৯ ১৬:৪৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হত্যাকে আত্মহনন বলে চালিয়ে দেওয়ার অভিযোগ

সিলেটের জকিগঞ্জের কাজলসার ইউনিয়নে আটগ্রামের আশ্রয়ন প্রকল্পের বাসিন্দা আব্দুল মান্নান উরফে বুতুলকে পিটিয়ে হত্যাকে আত্মহনন বলে চালিয়ে দেওয়ার অভিযোগে সিলেটের পুলিশ সুপার বরাবর অভিযোগ করেছেন নিহতের চাচাত ভাই শাকিল আহমদ।

লিখিত অভিযোগে শাকিল উল্লেখ করেন, ১০ অক্টোবর দুপুরে নিহতের স্ত্রী লায়লী বেগম ও চারিগ্রামের বাসিন্দা আব্দুস সালাম মেম্বার কয়েকজনকে সাথে নিয়ে নির্মমভাবে প্রহার করেন। তাদের প্রহারে সেদিন রাতে মান্নান মারা গেলে তার মুখে বিষ ঢেলে আত্মহত্যা বলে প্রচার করা হয়। পরদিন এশার নামাজ চলাকালীন সময়ে কোনো মাইকিং না করে চুপিসারে ৪/৫ জন লোক নিয়ে দাফন করেন আব্দুস সালাম ওরফে ফকির মাস্তান।

লিখিত অভিযোগে সালাম মেম্বারের নানা অপকর্মের বিস্তারিত বর্ণনা তুলে ধরে বলেন, সালাম মেম্বার আশ্রয়ন কেন্দ্রটি তার কব্জায় রেখে নারী ও মাদকের আখড়ায় পরিণত করেছেন। স্থানীয় পুলিশের সাথে রয়েছে তার সখ্যতা। কেউ সালাম মেম্বারের অপকর্মের প্রতিবাদ করলে তিনি তাদের শায়েস্তা করেন বিভিন্নভাবে। ইতিপূর্বে অভিযোগকারীকে মারধর করে বসত ঘরে আগুন দিয়ে তার স্ত্রী ও সন্তানকে মেরে ফেলা হয়। তার নিহত ভাইয়ের স্ত্রীর সাথে অনৈতিক সম্পর্ক ছিল সালাম মেম্বারের। উক্ত ঘটনার প্রতিবাদ করায় তাকে জীবন দিতে হয়েছে।

জকিগঞ্জ থানার ওসি মীর মো. আব্দুন নাসের বলেন, ঘটনার দিন নিহত মান্নানকে অসুস্থ অবস্থায় প্রথমে জকিগঞ্জ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে সিলেটে পাঠান। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। সিলেটের পুলিশ সুরতহাল প্রতিবেদন করে ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করে। এ ব্যাপারে জকিগঞ্জ থানায় ঘটনার তিনদিন পর একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা