kalerkantho

সোমবার । ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ১ পোষ ১৪২৬। ১৮ রবিউস সানি                         

যৌতুক না দেওয়ায় স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টা, স্বামী আটক

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি   

১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ০৪:২৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



যৌতুক না দেওয়ায় স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টা, স্বামী আটক

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে চাহিদা মতো যৌতুক না দেওয়ায় সুমাইয়া আক্তার শীলা (২৩) নামে এক গৃহবধূকে মোটরসাইকেল থেকে ফেলে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশ শনিবার দুপুরে এ ঘটনায় অভিযুক্ত স্বামী আবু তাহের খানকে আটক করেছে।

পারিবারিক ও পুলিশ সূত্র জানান, গত ৫ বছর আগে মির্জাপুর উপজেলার আনাইতারা ইউনিয়নের মহদীনগর গ্রামের মীর শামীম হোসেনের মেয়ে সুমাইয়ার সঙ্গে পার্শ্ববর্তী দেলদুয়ার উপজেলার ধানকি মহেড়া গ্রামের রহমত আলীর ছেলে আবু তাহের খানের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের জন্য স্ত্রীর ওপর শারীরিক ও মানুষিক চাপ প্রয়োগ করতে থাকে। কিন্তু সে তা দিতে অস্বীকার করায় স্বামী আরো ক্ষিপ্র হয়ে উঠে। পরে এক পর্যায় স্বামী সৌদি আরব চলে যান। এই দম্পত্তির তিন বছর বয়সের একটি ছেলে রয়েছে। 

সম্প্রতি আবু তাহের দেশে ফিরে আসে। দেশে এসেও সে আবার যৌতুকের জন্য স্ত্রীর ওপর শারীরিক ও মানষিক নির্যাতন করতে থাকে। কিন্তু সুমাইয়া তা দিতে অস্বীকার করায় স্বামী আরো ক্ষিপ্র হয়ে উঠে। সে তাকে হত্যার পরিকল্পনা করতে থাকে। এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য গত শুক্রবার বিকেলে বোনের বাড়ি যাওয়ার কথা বলে সুমাইয়াকে মোটরসাইকেলের পেছনে বসিয়ে রওনা হয়।

পথিমধ্যে পাকুল্যা-লাউহাটি সড়কের দেওড়া নামক স্থানে পৌঁছালে স্ত্রীকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। এতে সে গুরুতর আহত হয়। পরে তাকে মির্জাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। সুমাইয়ার মা শায়লা বেগম বাদী হয়ে রাতে মির্জাপুর থানায় অভিযোগ দিয়েছেন। শনিবার সকালে মির্জাপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মুরাদ উপজেলার মাঝালিয়া বাজার থেকে স্বামী আবু তাহের খানকে আটক করেছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা