kalerkantho

শনিবার । ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৬ রবিউস সানি               

ভাণ্ডারিয়ায় ভুয়া পরীক্ষার্থী-মাদরাসা সুপারসহ আটক ৭

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, পিরোজপুর   

১৬ নভেম্বর, ২০১৯ ১৯:৪৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভাণ্ডারিয়ায় ভুয়া পরীক্ষার্থী-মাদরাসা সুপারসহ আটক ৭

পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়ায় জেডিসি পরীক্ষায় বডি পরিবর্তন করে ভুয়া পরীক্ষা দেওয়ার অভিযোগে কেন্দ্র সচিব উপজেলা জামায়াতের আমির ও মাদরাসা সুপারসহ ৭ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, উপজেলার ইকড়ি ইউনিয়নের পশ্চিম পশারীবুনিয়ার নিভৃত পল্লীতে বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত বিপিএম দাখিল মাদরাসা পরীক্ষা কেন্দ্রে আজ শনিবার জুনিয়র দাখিল পরীক্ষা (জেডিসি) ইংরেজি বিষয়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

পরীক্ষা চলাকালীন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তৌহিদুল ইসলাম পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শনে গিয়ে ৫ ভুয়া পরীক্ষার্থীকে শনাক্ত করেন। অভিযুক্ত পরীক্ষার্থীদের অন্যের পরীক্ষা দেওয়ার অভিযোগে তাৎক্ষণিক আটক করা হয়।

এ ছাড়া আর্থিক সুবিধা নিয়ে ভুয়া পরীক্ষার সুযোগ করে দেওয়ার অভিযোগে পুলিশ পরীক্ষা কেন্দ্র সচিব ও উপজেলা জামায়াতের আমির মো. আমির হোসেন ও উপজেলার হরিণপালা নেছারিয়া সিদ্দিকীয়া দাখিল মাদরাসা সুপার মো. সিদ্দিকুর রহমানকে আটক করে।

জানা গেছে, উপজেলার পশ্চিম গোলবুনিয়া বালিকা দাখিল মাদরাসার নিয়মিত পরীক্ষার্থী মুনিয়া আক্তার রোল ৩০৬৫৪৬ এর পরিবর্তে হাফিজা আক্তার, রুমী আক্তার রোল ৩০৬৫৫০ এর পরিবর্তে কারিমা আক্তার, নূপুর আক্তার রোল ৩০৬৫৪৯ এর পরিবর্তে ফাযিল পরীক্ষার্থী মুনিয়া হাওলাদার, সোনিয়া আক্তার রোল ৩০৬৫৪১ এর পরিবর্তে বকুল আক্তার হরিণপালা নেছারিয়া ছিদ্দিকিয়া দাখিল মাদরাসা পরীক্ষার্থী বায়জিদ হোসেন রোল ৩০৬৩৮৬ এর পরিবর্তে মো. মমিনুল ইসলাম পরীক্ষায় অংশ নেয়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. নাজমুল আলম জানান, পরীক্ষাকেন্দ্র-২ বিপিএম দাখিল মাদরাসার কেন্দ্র সচিব মাওলানা আমীর হোসেনসহ মোট ৭ জনকে আটক করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট পরীক্ষা কেন্দ্র বাতিল ও সংশ্লিষ্ট মাদরাসাগুলোর এমপিও বাতিলের জন্য বাংলাদেশ মাদরাসা অধিদপ্তর, মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডে চিঠি পাঠানো হবে।

এ বিষয়ে ওসি (তদন্ত) ফরিদ হোসেন ঘটনা নিশ্চিত করে সাংবাদিকদের বলেন, এ ঘটনায় উপজেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. এমাদুল হক বাদী হয়ে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এ ছাড়া আটককৃত ৫ ভুয়া পরীক্ষার্থীর বিরুদ্ধে শিশু আইনে মামলা দায়ের করা হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা