kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৪ রবিউস সানি     

ছুটি শেষে ঢাকায় ফেরা হলো না মামুনের

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

১৫ নভেম্বর, ২০১৯ ২২:০৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ছুটি শেষে ঢাকায় ফেরা হলো না মামুনের

ছুটি কাটাতে বাড়ি এসে বন্ধুর সঙ্গে মোটরবাইকে বেড়াতে বের হন পুলিশ সদস্য মামুন মিয়া (২২)। ঘোরাঘুরির একপর্যায়ে সামনে থেকে আসা এক ব্যক্তির মাথায় থাকা বাঁশ ঢুকে পড়ে তার বুকের পাশে। পরে আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। কিন্তু বাঁচানো যায়নি তাকে।

বৃহস্পতিবার গভীর রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় তার। এই মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কের নান্দাইলের পালাহার নামক স্থানে। পরে আজ শুক্রবার রাত ৮টায় তার লাশ গ্রামের বাড়িতে দাফন করা হয়।

স্থানীয় সূত্র জানায়, নিহত মামুন মিয়া নান্দাইল উপজেলার সিংরুইল ইউনিয়নের হায়াতপুর গ্রামের আলাল উদ্দিনের ছেলে। পরিবারের লোকজন জানান, ২০১৬ সালে মামুন মিয়ার চাকরি হয় পুলিশ বাহিনীতে। প্রশিক্ষণ শেষে তার কর্মস্থল হয় রাজধানীর মিরপুরে। সেখানেই কর্মরত থাকা অবস্থায় গত ১০দিন আগে মামুন ছুটিতে বাড়ি আসেন। ছুটি শেষে তার আজ শনিবার কর্মস্থলে ফিরে যাওয়ার কথা ছিল। 

নিহত মামুনের বন্ধু মাজহারুল জানান, তার বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলা সদরে। বন্ধু মামুন বাড়িতে এলেই তাকে খবর পাঠান। এ অবস্থায় গত বৃহস্পতিবার সকালে মামুনের বাড়িতে এলে মোটরবাইকে করে ঘুরতে বের হন তারা। তিনিই মোটরবাইক চালাচ্ছিলেন। নান্দাইল সদর হয়ে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়ক দিয়ে বাড়ির দিকে ফেরার সময় পালাহার নামক স্থানে যেতেই সড়কের পাশ দিয়ে এক ব্যক্তি মাথায় বাঁশ নিয়ে সড়কে উঠে পড়েন। মুহূর্তেই তাদের মোটরবাইকের সামনে পড়ে গেলে বাঁশটি মামুনের বুকের বাম পাশ দিয়ে ঢুকে পড়ে। এমন অবস্থায় মামুনকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে রাত ১২টার দিকে তার মৃত্যু। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা