kalerkantho

শুক্রবার । ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৫ রবিউস সানি          

ছেলেকে শ্বাসরোধে হত্যা করলেন মা!

ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

১৫ নভেম্বর, ২০১৯ ১৮:৪২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ছেলেকে শ্বাসরোধে হত্যা করলেন মা!

ছেলেকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে পাশের পুকুরে ফেলে দিয়ে পাঁচ সন্তানের জননী নাছিমা খাতুন নিজেই আত্মচিৎকার করে এলাকাবাসীকে জানান দেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটে ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের কাকচর গ্রামে। 

জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে শিশু সন্তানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে বাড়ির পাশে পুকুরে ফেলে দেন মা নাছিমা খাতুন। পরে নিজেই চিৎকার দিয়ে গ্রামবাসীকে জাগিয়ে তুলেন ছেলেকে হত্যা করেছেন বলে। এলাকাবাসী টের পেয়ে মা নাছিমা খাতুনকে আটক করে তার স্বামী ও ত্রিশাল থানা পুলিশকে খবর দেয়। 

মায়ের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী, বাড়ির পাশের পুকুর থেকে শিশু জুলহাসের লাশ উদ্ধার করে এলাকাবাসী। এ সময় শিশুটির মাথা ও গলা আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়। পরে ত্রিশাল থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। মাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। পরে শিশু জুলহাসের পিতা বাদী হয়ে ত্রিশাল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। 

ওই নারীর স্বামী আবুল কালাম বলেন, আমি ২৫ বছর আগে নাছিমাকে বিয়ে করি। আমাদের ঘরে এক মেয়ে ও চার ছেলে সন্তান রয়েছে। মেয়েকে বিয়ের দেওয়ার পর তিন সন্তানকে নিয়ে আমি বাজারের চায়ের দোকান করি। আমার স্ত্রী প্রায়ই মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে যেত। 

ত্রিশাল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) এবং মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা সোহরাব বলেন, ঘটনার শুনার পরপরই আমরা লাশ উদ্ধার করে আসামিকে আটক করি। তবে এলাকাবাসী জানান ওই নারী প্রায়ই মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে যেতেন। নিজে শিশু সন্তানকে খুন করে সবাইকে খবর দেন। এ ঘটনায় তার স্বামী বাদী হয়ে ত্রিশাল থানায় মামলা দায়ের করেছেন। আসামিকে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা