kalerkantho

রবিবার । ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১০ রবিউস সানি ১৪৪১     

তুলে নিয়ে এক সন্তানের জননীকে গণধর্ষণ

কালকিনি (মাদারীপুর) প্রতিনিধি   

১৪ নভেম্বর, ২০১৯ ১৮:১৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তুলে নিয়ে এক সন্তানের জননীকে গণধর্ষণ

রাতের আধাঁরে খালি ঘর থেকে তুলে নিয়ে মাদারীপুরের কালকিনিতে এক সন্তানের জননীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। পরে ভুক্তভোগীকে আহত অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। বুধবার রাত দেড়টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। তবে খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

হাসপাতাল ও ভুক্তভোগীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, কালকিনি উপজেলায় এক সন্তানের জননী রাতের খাবার খেয়ে শিশু সন্তানকে নিয়ে একা ঘরে ঘুমিয়ে পরেন। এ সুযোগে একই এলাকার জামাল খানের ছেলে ভুক্তভোগীর চাচাতো ভাই পারভেজ খান মোবাইলে চার্জ দেওয়ার কথা বলে ঘরের দরজা খুলতে বলে। দরজা খুললে মুখ বেঁধে বাড়ির পাশের পুকুর পাড়ে নিয়ে যায়। এ সময় তাকে জোর করে নেশা জাতীয় দ্রব্য খাইয়ে পারভেজ ও তার চার-পাঁচ জন বন্ধু মিলে দলবেঁধে ধর্ষণ করে। পরে তারা তাকে ওই জায়গায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। এ বিষয়টি টের পেয়ে স্থানীয় লোকজন তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে কালকিনি হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে তাকে রেফার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ খবর পেয়ে কালকিনি থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

ভুক্তভোগীর বাবা অভিযোগ করে বলেন, খালি বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে আমার মেয়েকে জোর করে ধর্ষণ করেছে পারভেজ ও তার বন্ধুরা। আমি তাদের বিচার চাই। তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পারভেজ খানের এক আত্মীয় জানান, এ ঘটনা সাজানো। মূলত জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে এ নাটক সাজানো হয়েছে।

কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. রেজাউল করিম বলেন, আমাদের হাসপাতালে এই চিকিৎসা নেই তাই মাদারীপুর সদর হাসপাতালে রেফার করেছি। 

এই ব্যাপারে কালকিনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) হারুন অর রশিদ বলেন, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা