kalerkantho

সোমবার । ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ১ পোষ ১৪২৬। ১৮ রবিউস সানি                         

আওয়ামী লীগ নেতাসহ চারজনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি মামলা

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি    

১৪ নভেম্বর, ২০১৯ ১৪:৫১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আওয়ামী লীগ নেতাসহ চারজনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি মামলা

টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার গোড়াই ইউনিয়ন (পূর্ব) সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন ভূইয়া ঠান্ডুসহ চারজনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা হয়েছে। এ মামলায় পুলিশ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে। মঙ্গলবার রাতে উপজেলার গোড়াই শিল্পাঞ্চলের খান গার্মেন্টের সামনে থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। 

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো উপজেলার গোড়াই ইউনিয়নের রনারচালা গ্রামের মোকছেদ ভূইয়ার ছেলে করিব ভূইয়া (৩৫) ও গোড়াই দক্ষিন নাজিরপাড়া গ্রামের বাবর আলীর ছেলে আনোয়ার হোসেন (৩৫)। গোড়াই হলিদ্রচালা গ্রামের সবুজ হায়দারের চাঁদাবাজি মামলায় তাদের গ্রেপ্তার করা হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে। 

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২৩ অক্টোবর সকাল আনুমানিক সাড়ে ১০টার দিকে গ্রেপ্তারকৃতরাসহ গোড়াই রনার চালা গ্রামের কানছার আলীর ছেলে গোড়াই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ (পূর্ব) সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন ভূইয়া ঠান্ডু (৪৫) ও ছোট ভাই বিল্লাল ভূইয়া (৪২) সহ আরো ৫/৭ লোহার রড, কাঠের রোলসহ দেশীয় অস্ত্রসহ অবৈধভাবে গোড়াই শিল্পাঞ্চল এলাকার খন্দকার মটরসের ভেতর প্রবেশ করে। এ সময় তারা ম্যানেজার মো. সবুজ হায়দারের কাছে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। সবুজ তাদের চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে সন্ত্রাসীরা দোকান মালিকসহ ম্যানেজারকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। একপর্যায়ে তারা তাদের হাতে থাকা লোহার রড, কাঠের রোল দিয়ে ম্যানেজর সবুজ হায়দারকে মারপিট করে আহত করে। এ সময় তারা অফিসের ক্যাশ বাক্সে থাকা নগদ ৫০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। পরে ম্যানেজার চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে আসামিরা পালিয়ে যায়। 

এ ঘটনায় খন্দকার মটরসের ম্যানেরজার সবুজ হায়দার বাদী হয়ে ৪ নভেম্বর চারজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ৫/৭ জনের নামে টাঙ্গাইল জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। আদালতের নির্দেশে মঙ্গলবার মির্জাপুর থানার ওসি মো. সায়েদুর রহমান মামলাটি এফআইআর এবং ওই রাতেই দুজনকে গ্রেপ্তার করেন। 

মির্জাপুর থানার এসআই রুবেল ঘটনার সত্যতার স্বীকার করে বলেন, অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে উল্লেখ করেন। 

 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা