kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে বিএনপি ষড়যন্ত্রে লিপ্ত : এলজিআরডিমন্ত্রী

লাকসাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি   

৯ নভেম্বর, ২০১৯ ২১:৫০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে বিএনপি ষড়যন্ত্রে লিপ্ত : এলজিআরডিমন্ত্রী

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, দেশে আজ যারা গণতন্ত্রের কথা বলেন তারা ১৯৭৫ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ তাঁর সপরিবারকে হত্যা করেই ক্ষান্ত হয়নি। সেদিন তারা গণতন্ত্রকে হত্যা করে ক্ষমতা দখল করেছে। দেশে সামরিক শাসন কায়েম করেছে। ক্ষমতায় এসে বিএনপি নামক দল গঠন করেছে। আজ তারা গণতন্ত্রের দোহাই দিচ্ছেন। বিএনপির মুখে গণতন্ত্রের কথা মানায় না।

মন্ত্রী বলেন, ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা, আন্দোলনের নামে বাস-ট্রেনে পেট্রোল বোমা মেরে মানুষ হত্যা বিএনপির কাজ। বর্তমানে ওই দলটি সরকারের উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে বাধাগ্রস্ত করতে নানা ষড়যন্ত্র লিপ্ত রয়েছে। যেকোনো মূল্যে এ দেশের জনগণ তাদের সকল ষড়যন্ত্র অঙ্কুরে বিনাশ করে দেবে।

আজ শনিবার লাকসাম উপজেলা পরিষদ কর্তৃক আয়োজিত বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথাগুলো বলেন।

এদিন বিকেলে সাড়ে ৪টায় উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে অনুষ্ঠিত উন্নয়ন কার্যক্রমের উদ্বোধনী লাকসাম উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মহব্বত আলীর সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মো. আবুল ফজল মীর, জেলা পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম পিপিএম (বার) বিপিএম।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) উজালা রাণী চাকমার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন লাকসাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এ কে এম সাইফুল আলম। এ ছাড়া উপজেলার মুদাফরগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান মো. আবদুর রশিদ সওদাগর, উত্তরদা ইউপি চেয়ারম্যান মো. হারনুর রশিদ, আজগরা ইউপি চেয়ারম্যান মো. রুহুল আমিন, কান্দিরপাড় ইউপি চেয়ারম্যান মো. ওমর ফারুক, গোবিন্দপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. নিজাম উদ্দিন শামীম প্রমূখ।

স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের মহাসড়কে। কোনো অপশক্তি এই উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে বাধাগ্রস্ত করতে পারবে না। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার নিরলস ভাবে কাজ করছেন। ক্ষুধা-দারিদ্র মুক্ত অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি অর্জনের মধ্যদিয়ে আগামী ২০৪১ সালের আগেই বাংলাদেশ উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে বিশ্বের দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে।

মন্ত্রী আরো বলেন, বাংলাদেশ এখন খাদ্যে স্বয়ং সম্পূর্ণ। মানুষের জীবন যাত্রার মান হবে অনেক বেড়েছে। এই দেশে কেউ গৃহহীন থাকবে না। প্রতিটি ঘরে বিদ্যুতের আলো জ্বলবে। নারি পুরুষের সমান অংশগ্রহণের মাধ্যমেই সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তোলা সম্ভব।

তিনি বলেন, গ্রাম হবে শহর। প্রধানমন্ত্রীর এই ঘোষণা বাস্তবায়নে বর্তমান সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রনালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী, সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারী বিশেষ করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করছেন। বর্তমান সরকারের প্রশংসনীয় এমন উদ্যোগ বাস্তবায়নে স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে জড়িত সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে ১০০ গৃহহীন পরিবারের মাঝে বরাদ্দকৃত ঘরের চাবি হস্তান্তর করেন। এ ছাড়া শিক্ষার্থীদের মাঝে সাইকেল, কৃষকদের মাঝে কৃষি উপকরণ যেমন-পাওয়ারটিলার, সেচযন্ত্র, বীজ, সার এবং হতদরিদ্রদের মাঝে বিভিন্ন অনুদানের চেক বিতরণ করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা