kalerkantho

শুক্রবার । ২২ নভেম্বর ২০১৯। ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

রায়পুরায় মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

রায়পুরা (নরসিংদী) প্রতিনিধি   

৯ নভেম্বর, ২০১৯ ১৫:২৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রায়পুরায় মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

নরসিংদীর রায়পুরায় পঞ্চম শ্রেণির মাদরাসার এক ছাত্রীকে (১৪) ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সে উপজেলার আদিয়াবাদ ইউনিয়নের আদিয়াবাদ উত্তরপাড়া এলাকার ট্রাকচালক জসিম মিয়ার মেয়ে ও স্থানীয় আয়েশা আক্তার মহিলা মাদরাসার ছাত্রী। এ ঘটনার এক সাপ্তাহ পর আজ শনিবার (৯ নভেম্বর) ধর্ষিতার বাবা রায়পুরা থানার পুলিশকে বিষয়টি জানালে পুলিশ ওই কিশোরীর থানায় নিয়ে আসে এবং ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য আগামীকাল রবিবার তাকে হাসপাতালে পাঠানো হবে। উক্ত ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে বলে জানান রায়পুরা থানার এসআই দেব দুলাল।

অভিযুক্ত ধর্ষকরা হলেন উপজেলার আদিয়াবাদ উত্তরপাড়া এলাকার মো. কাঞ্চন মিয়ার ছেলে আতিকুল ইসলাম (১৮) ও তার তিন সহযোগী একই এলাকার মো. আলম মিয়ার ছেলে মো. রিয়াদ, মো. মাছুম মিয়ার ছেলে শিপন ও শিপনের বোনের ছেলে বাদশা। এর আগে গত শুক্রবার (১ নভেম্বর) সন্ধ্যায় আদিয়াবাদ উত্তপাড়ার নিজ বাড়ি থেকে ওই মাদরাসাছাত্রীকে আতিকুর ও তার সহযোগীরা জোরপূর্বক উঠিয়ে নিয়ে বাড়ির পাশে একটি আখক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণ করে। 

পরিবার সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরেই ট্রাকচালক জসিম মিয়ার মাদরাসাপড়ুয়া মেয়েকে রাস্তা-ঘাটে চলাফেরার সময় উত্ত্যক্ত করত বখাটে আতিকুল। গত (১ নভেম্বর) শুক্রবার মাদরাসা বন্ধ থাকার সুবাদে ওই কিশোরী নিজ বাড়িতেই ছিল। সন্ধ্যায় পর বাড়ির বাইরে বের হলে আগে থেকেই অবস্থান নেওয়া আতিকুল ও তার সহযোগীরা মিলে কিশোরীর মুখ ও হাত চেপে ধরে বাড়ির পাশে একটি আখক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণ করে। ওই সময় ধর্ষিতার চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা বেরিয়ে এলে ঘটনাস্থল থেকে তারা পালিয়ে যায়।

রায়পুরা থানার এসআই দেব দুলাল বলেন, এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে। ধর্ষণের শিকার কিশোরীকে আগামীকাল রবিবার নরসিংদী সদর হাসপাতালে ডাক্তারি পরীক্ষার জন পাঠানো হবে। তিনি আরো বলেন, অভিযুক্তদের ধরতে চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা