kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ভুয়া গ্রেপ্তারি পরোয়ানা মাথায় নিয়ে দিশেহারা হারুন

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, কুড়িগ্রাম   

৮ নভেম্বর, ২০১৯ ১৬:৫০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভুয়া গ্রেপ্তারি পরোয়ানা মাথায় নিয়ে দিশেহারা হারুন

কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার বন্দবেড় গ্রামের হারুন মিয়া নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে একটি ভুয়া মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানার আদেশ দেওয়া হয়েছে। এই নিয়ে এলাকার জনমনে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। পরোয়ানার খবর শুনে নিরাপরাধ ওই ব্যক্তি এখন দিশেহারা। 

রৌমারী থানায় আসা ওই গ্রেপ্তারি পরোয়ানার আদেশ পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, হবিগঞ্চ সদর থানায় দায়ের দেখানো ওই মামলায় হবিগঞ্জ জেলা চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রিট আদালত ওই পরোয়ানার আদেশ প্রদান করে। গত ২০দিন আগে ওই আদেশ কুড়িগ্রাম চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত হয়ে রৌমারী থানায় আসে। গ্রেপ্তারি পরোয়ানার আদেশের সূত্র ধরে দেখা গেছে, গত ২০১৮ সালে হবিগঞ্জ সদর থানায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের দায়ের করা ৭৮১ নং মামলায় (ধারা ফৌ ১০৭/১১৪/১১৭) একমাত্র আসামি হারুন মিয়া নামের ওই ব্যক্তি। 

আজ শুক্রবার সাংবাদিকদের কাছে হারুন মিয়া নামের ওই ব্যক্তি অভিযোগ করে বলেন, হবিগঞ্জ সদর থানায় খোঁজ নিয়ে জানতে পেরেছি ৭৮১নং কোনো মামলা নেই। আমার নামেও কোনো মামলা নেই। ৭৮১নং মামলাটিও ভুয়া। এরপর হবিগঞ্জ চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে খোঁজ নিয়ে নিশ্চিত হয়েছি আমার নামে কোনো মামলা নেই। এ আদালত থেকে আমার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানার কোনো আদেশও প্রদান করেনি। তাছাড়া হবিগঞ্জ জেলায় আমার কোনো আত্মীয়স্বজন ও পরিচিত কেউ নেই। আমি হবিগঞ্জ জেলায়ও কোনোদিন যাইনি, চিনিও না।

রৌমারী থানার ওয়ারেন্ট অফিসার এএসআই জাহাঙ্গীর আলম জানান, ‘গ্রেপ্তারি পরোয়ানার আদেশটি কুড়িগ্রাম চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত হয়ে আমাদের কাছে আসে। মামলাটি ভুয়া কিনা তা আমরা বলতে পারব না। এখন শুনতেছি মামলাটি ভুয়া।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা