kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

র‌্যাগিংয়ে বাধায় মারধর শিক্ষার্থীকে

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২০ অক্টোবর, ২০১৯ ২২:৫২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



র‌্যাগিংয়ে বাধায় মারধর শিক্ষার্থীকে

ছবি: কালের কণ্ঠ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠেয় ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির ভর্তি পরীক্ষা দিতে আসা শিক্ষার্থীকে র‌্যাগিংয়ে বাধা দেওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে মারধর করা হয়েছে বলে জানা গেছে। 

আজ রবিবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সোহরাওয়ার্দী হলের সামনে এ ঘটনা ঘটে। পরে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর নাম সাইদুর রহমান। সে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী। অভিযুক্ত মাসুম শিকদার বাংলা বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী। তারা দুজনের বাড়িই টাঙ্গাইলে। 

প্রত্যক্ষদর্শী ও ভর্তিচ্ছু সূত্রে জানা যায়, টাঙ্গাইল থেকে ভর্তি পরীক্ষা দিতে আসা আরিফ বিকেলে ক্যাম্পাসে ঘুরতে বের হন। এ সময় মাসুম তাকে ডেকে তুই-তুকারি করে এবং বিভিন্ন প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করতে থাকে। তখন সাইদুর মাসুমকে দুর্ব্যবহারের কারণ জিজ্ঞাসা করেন।

এ সময় দুজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে মাসুম উত্তেজিত হয়ে সাইদুরের কপালে আঘাত করে। এতে সাইদুরের কপাল কেটে যায়। আরিফ সাইদুরের আত্মীয় বলে জানা গেছে। 

তবে র‌্যাগ দেওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে মাসুম পারভেজ বলেন, আমরা তিনজন মাদার বখশ্ হলের সামনে আড্ডা দিচ্ছিলাম।

সাইদুরের ফোন এলে সে উঠে পাশের দিকে যায়। এ সময় আমি আরিফের কাছে তার পরিচয় জানতে চাই। ওই সময় ঝামেলা হয়নি। কিছুক্ষণ পর সাইদুরের সঙ্গে দেখা হয়। ওই সময় তার সঙ্গে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে দুইজনের মধ্যে ঘুষাঘুষি হয়। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান বলেন, আমি বিষয়টি অবগত। আমাদের সহকারী প্রক্টর মেডিক্যালে পাঠিয়েছি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা