kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

গুইমারায় আগুনে পুড়ে ছাই ছয় দোকান ও বৌদ্ধ বিহার

গুইমারা (খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধি   

২০ অক্টোবর, ২০১৯ ২১:০১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গুইমারায় আগুনে পুড়ে ছাই ছয় দোকান ও বৌদ্ধ বিহার

খাগড়াছড়ি জেলার গুইমারা বাজারে ৬টি দোকান ও বটতলী এলাকায় একটি বৌদ্ধ মন্দির আগুনে পুড়ে গেছে। পরে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্তদের সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। বাজার ব্যবসায়ীদের ধারণা শনিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে বিদ্যুতের লাইন থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়।

খবর পেয়ে মাটিরাংগা ও রামগড়  ফায়ার স্টোশন ইউনিট এসে টানা এক ঘণ্টা চেষ্টার পর ভোরে আগুন নিয়ন্ত্রণ করেন। বাজার পরিচালনা কমিটি সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গির আলম বলেন, আগুনে পুড়ে যাওয়া ৬টি দোকানে প্রায় কোটি টাকার অধিক পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্তরা হলো নিজাম, মোরশেদ, তৈয়ব আলী, তোফায়েল, সাহালম, লোকমান সওদাগর।

এদিকে একইদিনে উপজেলার বটতলী মাস্টার পাড়া ম্রাইমুনি বৌদ্ধ বিহারটি সৌর বিদ্যুৎ এর ব্যাটারি বিস্ফোরণ হয়ে বিহারে থাকা ৬টি বৌদ্ধ মূর্তিসহ নগত ২ লক্ষ টাকা ও বিহারের দায়িত্বরত আগাছড়া ভান্তে (মুক্তিযোদ্ধা মংসাজাই মারমা) মুক্তিযোদ্ধা সনদ পুড়ে গেছে। দুর্গম এলাকা হওয়ায় ফায়ার স্টোশন ইউনিট সেখানে পৌঁছানো সম্ভব হয়নি।

স্থানীয় সমাজকর্মী থইয়ো মারমা জানান, বিহারটি আগুনে পুড়ে যাওয়ায় ধর্ম পালনে সমস্যা হচ্ছে। এলাকার স্বার্থে বিহারটি দ্রুত সময়ে নির্মাণ জরুরি বলে তিনি মনে করেন।

খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ হাবিব উল্ল্যাহ মারুফ স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী রীগের সাধারণ সম্পাদক মেমং মারমাকে নিয়ে ঘটনাস্থল পরির্দশন করেন এবং ক্ষতিগ্রস্তদের জেরা প্রশাসকের পক্ষ থেকে দ্রুত সময়ে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার আশ্বাস প্রদান করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা