kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ নভেম্বর ২০১৯। ৩০ কার্তিক ১৪২৬। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

জমি নিয়ে বিরোধ : বৃদ্ধা বোনকে পেটাল তিন ভাই

আক্কেলপুর (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি   

১৯ অক্টোবর, ২০১৯ ১৮:১২ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জমি নিয়ে বিরোধ : বৃদ্ধা বোনকে পেটাল তিন ভাই

জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে জমিজমা বিষয়ে বিরোধের জেরে হাসিনা বেগম (৬৫) নামে এক বৃদ্ধা বোনকে বেধড়ক পিটেয়ে গুরুতর আহত করেছে তারই ছোট তিন ভাই- এমন অভিযোগ উঠেছে। বর্তমানে হাসিনা বেগম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন। এ ঘটনায় গত ১৭ অক্টোবর আক্কেলপুর থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে।

এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার হড়িসারা গ্রামের হাসিনা বেগমের পাঁচ বোন পাঁচ ভাই। সবার বড় হাসিনা বেগম। তার দাদা মৃত ভোল প্রামানিক তার কোনো সন্তান না থাকায় হাসিনা বেগমকে পালিত মেয়ে হিসেবে লালন-পালন করে বড় করেন। এবং বিয়ে দিয়ে তাকে তার (দাদার) বাড়িতেই (ঘরজামাই) হিসেবেই রাখেন। হাসিনার দাদা মারা যাওয়ার পরে জমি-জমা নিয়ে তার ছোট ভাই আলাল হোসেন, ফেরদৌস ও আলমগীরের সাথে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১৫ অক্টোবর রাত ১১টায় আলাল হোসেন ও তার দুই ভাই ফেরদৌস ও আলমগীর  হাসিনা বেগমের বাড়িতে প্রবেশ করে তাকে ঘর থেকে বের করে এনে বেধড়ক মারপিট করে গুরুতর আহত করে। পরে তার পরিবারের লোকজন ও স্থানীয় হাসিনা বেগমকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। বর্তমানে তিনি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

এ ঘটনায় হাসিনা বেগমের ছেলে রাজু হোসেন বাদী হয়ে তার মাকে মারপিট করার অভিযোগে ওই তার নানা মৃত আমজাদ হোসেনের ছেলে আলাল হোসেন, ফেরদৌস হোসেন এবং আলমগীর হোসেনের নামে গত ১৭ অক্টোবর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

রাজু হোসেন বলেন, আমাদের বাড়ির জমি নিয়ে আমার তিন মামাদের সাথে দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলে আসছিল। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় ভাবে একাধিকবার সালিসও হয়েছিল। কিন্তু মামারা ওই সালিসে মীমাংসা হওয়ার কিছু দিন পরে আবার ঝামেলা করে। একপর্যায়ে আমার মাকে হত্যার জন্য গভীর রাতে বাড়িতে লোকজন না থাকার সুযোগে তারা এলোপাতাড়িভাবে মেরে অচেতন করে পালিয়ে যায়। আমি আমার মাকে মারার বিচার চেয়ে তাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছি।

হাসিনা বেগম বলেন, আমার পাঁচ ভাই- দুই ভাই বিদেশে থাকে। আমার নিজনামীয় জমি আমার ছোট তিন ভাইরা জোর করে নিতে চায়। আমি তা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তারা প্রায় সময় আমাকে মারে। সেদিন আমাকে তারা মেরেই ফেলত। আল্লাহ আমাকে বাঁচিয়েছেন। সম্পদের লোভে আমার ভাইরা অন্ধ হয়ে গেছেন।

হাসিনা বেগমের ভাই আলাল হোসেন তার বোনকে মারার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, আমরা আমার বোনকে মারিনি। আমাদেরকে ফাঁসানোর জন্য তার ছেলে রাজু হোসের এই মিথ্যা নাটক সাজিয়েছে। 

আক্কেলপুর থানার এসআই তাজুল ইসলাম বলেন, আমি এই মামলাটি দেখছি এবং আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য জোর চেষ্টা চালাচ্ছি। আক্কেলপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবু ওবায়েদ বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা