kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৯ নভেম্বর ২০১৯। ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

খাবার দিতে দেরি হওয়ায় নানীকে হাতুড়িপেটায় হত্যা

নরসিংদী প্রতিনিধি   

১৮ অক্টোবর, ২০১৯ ১৪:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



খাবার দিতে দেরি হওয়ায় নানীকে হাতুড়িপেটায় হত্যা

নরসিংদীতে ফুলমালা বেগম (৬০) নামের এক বৃদ্ধাকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছে তাঁরই নাতী পলাশ মিয়া (১৭)।

বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১২টার দিকে সদর উপজেলার কুড়েরপাঁড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। হত্যার পর নিজেই পুলিশকে ফোন করে ঘটনা জানায় পলাশ।

নিহত ফুলমালা কুড়েরপাড় এলাকার মৃত সুন্দর আলীর স্ত্রী। অভিযুক্ত পলাশের বাবার নাম ইসমাইল হোসেন।

পুলিশের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ফুলমালা বেগমের  স্বামী সুন্দর আলীর মৃত্যুর পর মেয়ে সাফি আক্তারের ছেলে পলাশকে নিজের কাছে নিয়ে আসে লালন পালনের জন্য। সম্প্রতি পলাশ স্থানীয় স্কুল থেকে এসএসসি পাস করেছে।

বৃহস্পতিবার রাত পৌনে বারটার দিকে পলাশ বাইরে থেকে বাড়ি ফিরে রাতের খাবার চায়। বেশী রাত করে বাড়ি ফেরায় নানী প্রথমে বকাঝকা করেন। তাই খাবার দিতে একটু দেরি হওয়ায় পলাশ তাঁর নানীর পিঠে প্রথমে কিল দেয়। এতে নানী ক্ষিপ্ত হয়ে পলাশকে লাথি দেয়। তারপর পলাশ হাতুড়ি নিয়ে নানী ফুলমালাকে মাথায় ও মুখে এলোপাথারি পিটিয়ে আহত করলে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়। পরে পলাশ নিজেই পুলিশকে ফোন করে ঘটনার বিবরণ দেয়।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যে নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায় এবং অভিযুক্ত পলাশকে আটক করে পুলিশ হেফাজতে নিয়ে যায়।

মাধবদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু তাহের দেওয়ান বলেন, মূলত ভাত দিতে দেরি হওয়াকে কেন্দ্র করে নানী ও নাতীর মধ্যে ঝগড়া।

এ ঘটনায় একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা